২৭শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৬শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

পাকিস্তানে চা পান কমানোর আহ্বান মন্ত্রীর

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : পাকিস্তানে ভাসমান অর্থনীতিকে চাঙা করতে সাধারণ জনগণকে চা পানের পরিমাণ কমিয়ে আনার আহ্বান জানিয়েছেন দেশটির পরিকল্পনা ও উন্নয়ন মন্ত্রী আহসান ইকবাল। রাজধানী ইসলামাবাদে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ আহ্বান জানান। বুধবার (১৫ জুন) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয় ।

আহসান ইকবাল বলেন, পাকিস্তানকে যেহেতু চা আমদানি করতে হয়, তাই এর পেছনে যথেষ্ট পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রা ব্যয় হয়। এ অবস্থায় দেশের মানুষ কিছুদিন চা কম খেলে বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হবে।

তিনি বলেন, ‘এক থেকে দুই কাপ চা কম পান করার জন্য সবাইকে অনুরোধ করবো। কারণ আমরা ঋণ করে চা আমদানি করি।’

আহসান ইকবাল এটাও বলেন যে, দিনে যত কম কাপে চুমুক দেওয়া যাবে পাকিস্তানের আমদানি ব্যয় তত কম হবে।

চা আমদানিতে বিশ্বে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে পাকিস্তান। গত বছর ৬০ কোটি ডলারেরও বেশি মূল্যের চা আমদানি করে দেশটি। বিভিন্ন জরিপের তথ্য বলছে, পাকিস্তানে গড়ে একজন মানুষ প্রতি বছর এক কেজি পরিমাণে চা পান করেন। তবে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভের দ্রুত পতন ও উচ্চ আমদানি খরচ কমাতে এমন আহ্বান জানালেন মন্ত্রী।

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য ব্যবসায়ীদেরকে দোকানপাট স্থানীয় সময় রাত ৮টা ৩০ মিনিটের মধ্যে বন্ধ করারও পরামর্শ দেন তিনি।

এদিকে, চা পান কমানো নিয়ে মন্ত্রীর এ বক্তব্য ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। অনেকে সংশয় প্রকাশ করছেন দেশের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি নিয়ে। তবে এর পরিবর্তে বিকল্প উপায় বের করার কথাও বলছেন কেউ কেউ।

দেশটির কম বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ সব ধরনের আমদানির পণ্যের ওপর প্রভাব ফেলেছে। এরই মধ্যে ২৬টির মতো পণ্য আমদানিতে বিধিনিষেধ জারি করেছে শাহবাজ সরকার।

চলতি বছর এপ্রিলে অনাস্থা ভোটে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর দেশটির নতুন প্রধানমন্ত্রী হন শাহবাজ শলিফ। কয়েক মাসের ব্যবধানে অর্থনৈতিক সংকট শাহবাজ সরকারকে কঠিন পরীক্ষার মুখে ফেলেছে। যদিও দেশটির অর্থনৈতিক পরিস্থিতির জন্য ইমরান খানকেই দায়ী করছে শাহবাজ সরকার।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com