২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ১৯শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১০ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

প্রবাস আয় কমবে শতকোটি ডলার

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : বহির্বিশ্বের মন্দার প্রভাবের পাশাপাশি অভ্যন্তরীণ অর্থনৈতিক সংকটেও রয়েছে বাংলাদেশ। ডলারের বিপরীতে কমছে স্থানীয় মুদ্রার দাম। এতে বাড়তি লাভের আসায় প্রবাসীরা বৈধ চ্যানেলে অর্থ কম পাঠিয়ে হুন্ডি করছেন। এর ফলে আগের বছরের তুলনায় ২০২২ সালে প্রবাস আয় (রেমিট্যান্স) ১০০ কোটি ডলার কমবে বলে জানিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

বৃহস্পতিবার বিশ্বব্যাংক প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বাংলাদেশ নিয়ে এমন তথ্য তুলে ধরা হয়েছে।

‘রেমিট্যান্সেস ব্রেভ গ্লোবাল হেডউইন্ড’ শীর্ষক ওই প্রতিবেদনে বিশ্বব্যাংক জানায়, ২০২২ সালে বাংলাদেশে রেমিট্যান্সপ্রবাহ কমে হবে দুই হাজার ১০০ কোটি ডলার। যেখানে ২০২১ সালে এসেছিল দুই হাজার ২০০ কোটি ডলার। যদিও রেমিট্যান্স বাড়াতে সরকার প্রণোদনার পাশাপাশি ব্যাংকিং নানা সুযোগ-সুবিধা দিয়েছে। বিশ্বজুড়ে পণ্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি এবং ব্যালেন্স অব পেমেন্ট বা লেনদেন ভারসাম্যের ঘাটতির ফলে বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ উল্লেখযোগ্য পরিমাণে কমেছে।

সংস্থাটি জানায়, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে শ্রমিকের ব্যাপক চাহিদা থাকলেও বাংলাদেশ, পাকিস্তানসহ দক্ষিণ এশিয়ার অনেক দেশেই রেমিট্যান্সপ্রবাহ কমছে। এতে দেশগুলোতে লেনদেনের ভারসাম্যের সংকট তৈরি হচ্ছে। এ বছর বাংলাদেশে রেমিট্যান্সপ্রবাহ কমবে ৭ শতাংশ, পাকিস্তানের ৩.৪ শতাংশ এবং নেপালের কমবে ৫ শতাংশ। তবে এ বছর দক্ষিণ এশিয়ায় রেমিট্যান্সপ্রবাহ ৩.৫ শতাংশ বেড়ে হবে ১৬ হাজার ৩০০ কোটি ডলার। প্রথমবারের মতো ভারতের রেমিট্যান্স আয়ে ১০০ বিলিয়ন ডলার বা ১০ হাজার কোটি ডলারের মাইলফলক অর্জিত হবে।

প্রতিবেদনে বলা হয়, ভারতের পর বেশি রেমিট্যান্স পাবে পাকিস্তান। দেশটি দুই হাজার ৯০০ কোটি ডলার পাবে। এ ছাড়া বাংলাদেশ দুই হাজার ১০০ কোটি ডলার, নেপাল ৮৫০ কোটি ডলার, শ্রীলঙ্কা ৩৬০ কোটি ডলার এবং আফগানিস্তান ৪০ কোটি ডলার আয় করবে। এ ছাড়া ভুটান আয় করবে এক কোটি ডলার এবং মালদ্বীপ আয় করবে এক কোটি ডলারের চেয়ে কম।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বের শীর্ষ আট প্রবাস আয়ের দেশের মধ্যে বাংলাদেশ সপ্তম স্থানে থাকবে। গত বছরও বাংলাদেশ একই অবস্থানে ছিল। এ বছর প্রথম স্থানে থাকবে ভারত, দ্বিতীয় মেক্সিকো, তৃতীয় চীন, চতুর্থ ফিলিপাইন, পঞ্চম মিসর, ষষ্ঠ পাকিস্তান।

  • তিন মাসের মধ্যে নভেম্বরে এলো সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স

ডলারসংকটের মধ্যে সুখবর দিয়েছে প্রবাস আয়। দেশে রেমিট্যান্সপ্রবাহ আগের চেয়ে সদ্যঃসমাপ্ত নভেম্বর মাসে কিছুটা বেড়েছে। ওই মাসে ১৫৯ কোটি ৪৭ লাখ ডলার রেমিট্যান্স এসেছে, যা গত তিন মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদনে এই চিত্র উঠে এসেছে।

  • রেমিট্যান্স বাড়াতে বাংলাদেশ ব্যাংকের উদ্যোগ

রেমিট্যান্স বাড়াতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক নানা উদ্যোগ নিয়েছে। বৈধ পথে রেমিট্যান্স পাঠাতে বিভিন্নভাবে উৎসাহ দিয়ে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গত ১৬ নভেম্বর বাংলাদেশ ফিন্যানশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ) থেকে প্রবাসীদের উদ্দেশে জানানো হয়, বৈধ পথে বা ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে দেশে রেমিট্যান্স পাঠান, প্রিয়জনকে ঝুঁকিমুক্ত ও নিরাপদ রাখুন। হুন্ডি বা অন্য কোনো অবৈধ পথে রেমিট্যান্স না পাঠানোর জন্য এভাবে আহ্বান জানায় কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংক জানায়, প্রবাসী বাংলাদেশিদের কষ্টার্জিত বৈদেশিক মুদ্রা ব্যাংকিং চ্যানেলের বাইরে (হুন্ডি বা অন্য কোনো অবৈধ পথে) পাঠানো আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ এবং এতে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

রিজার্ভ ও রেমিট্যান্স বাড়াতে হুন্ডি প্রতিরোধের বিভিন্ন পরিকল্পনা হাতে নিয়েছে আর্থিক গোয়েন্দা সংস্থা বাংলাদেশ ফিন্যানশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)। হুন্ডির মাধ্যমে রেমিট্যান্স পাঠানোর সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ২৩০ জন বেনিফিশিয়ারির হিসাব সাময়িকভাবে স্থগিত করে আর্থিক খাতের এই সংস্থা।

এ ছাড়া রেমিট্যান্স বাড়াতে যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, সেগুলোর মধ্যে বৈধ উপায়ে ওয়েজ আর্নার্স রেমিট্যান্সের বিপরীতে আড়াই শতাংশ নগদ প্রণোদনা, সরকার রেমিট্যান্স প্রেরণকারীদের সিআইপি সম্মাননা, রেমিট্যান্স বিতরণ প্রক্রিয়া সম্প্রসারণ ও সহজীকরণের পাশাপাশি অনিবাসী বাংলাদেশিদের জন্য বিনিয়োগ ও গৃহায়ণ অর্থায়ন সুবিধা দেওয়া, ফিনটেক পদ্ধতির আওতায় আন্তর্জাতিক মানি ট্রান্সফার অপারেটরকে বাংলাদেশের ব্যাংকের সঙ্গে ড্রয়িং ব্যবস্থা স্থাপনে উদ্বুদ্ধকরণ এবং রেমিট্যান্স প্রেরণে ব্যাংক বা এক্সচেঞ্জ হাউসগুলোর চার্জ ফি মওকুফ করা হয়েছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন পর্যালোচনায় দেখা গেছে, নভেম্বরে যে পরিমাণ রেমিট্যান্স এসেছে তার মধ্যে রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে ২৬ কোটি ৮০ লাখ ডলার, বিশেষায়িত একটি ব্যাংকের মাধ্যমে তিন কোটি ২১ লাখ ৭০ হাজার, বেসরকারি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ১২৮ কোটি ৯৩ লাখ ২০ হাজার এবং বিদেশি ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ৫২ লাখ ৪০ হাজার মার্কিন ডলার।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com