১৯শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৭ই শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

ফের আল-আকসা মসজিদে ইসরাইলি পুলিশের হামলা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : দুই দিনের ব্যবধানে ফের ফিলিস্তিনের অধিকৃত পূর্ব জেরুজালেমে পবিত্র আল-আকসা মসজিদে হামলার ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সময় রোববার ফজরের নামাজের সময় মসজিদ প্রাঙ্গণে ইসরাইলি পুলিশ অভিযান শুরু করলে পুলিশের সঙ্গে ফিলিস্তিনি বিক্ষোভকারীদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়।

এ হামলায় অন্তত ১৯ ফিলিস্তিনি আহত হন। ঘটনার পর বেশ কয়েকজন ফিলিস্তিনিকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। খবর আল-জাজিরা।

এর দুই দিন আগে গত শুক্রবার ভোরে ফজরের নামাজের সময় কয়েক হাজার মুসল্লি আল-আকসা মসজিদে যান। ইহুদি দর্শনার্থীদের চলাচলের পথ করে দিতে সে সময় মুসল্লিদের বেধড়ক পেটায় ইসরাইলি পুলিশ। এতে আহত হন অন্তত ১৫৮ জন, আটক হন ৩০০ ফিলিস্তিনি। এরপর মসজিদে অভিযান চালিয়ে কয়েক’শ ফিলিস্তিনিকে গ্রেপ্তার করে ইসরাইলি বাহিনী।

এদিকে, আল-আকসা প্রাঙ্গণে ইসরাইলি পুলিশের হামলাকে ‘যুদ্ধের ঘোষণা’ হিসেবে দেখছে ফিলিস্তিনিরা।

আল-জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, এ বিষয়ে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ বলেছে- রোববার ফিলিস্তিনিরা মসজিদে পাথর মজুত করে রেখেছিল। তারা ইসরাইলি ইহুদিদের মসজিদে প্রবেশ করতে বাধা দেয়ার জন্য ব্যারিকেড দিয়েছিল। এ কারণে ইসরাইলি পুলিশ আল-আকসা মসজিদে প্রবেশ করে।

তবে ইসরাইলি পুলিশ স্বীকার করেছে, তারা অধিকাংশ ফিলিস্তিনি মুসল্লিকে আল-আকসা মসজিদ থেকে তাড়িয়ে দিয়েছে। তবে বেশ কয়েকজন ফিলিস্তিনি তখনও মসজিদে ছিলেন। এ ঘটনায় ইসরাইলি পুলিশ ৯ ফিলিস্তিনিকে গ্রেপ্তার করেছে।

ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্যকর্মীরা জানিয়েছেন, ইসরাইলি পুলিশের আক্রমণে কমপক্ষে ১৭ ফিলিস্তিনি মুসল্লি আহত হয়েছেন। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাদের হাসপাতালে নেয়া হয়েছে। এসব গুরুতর আহতদের বেধড়ক মারধর করা হয়েছে এবং রাবার বুলেট দিয়ে আঘাত করা হয়েছে।

ফিলিস্তিনের রেড ক্রস জানিয়েছে, আহত ফিলিস্তিনি মুসল্লিদের চিকিৎসা দিতে যাওয়ার সময় বাধা দেয় ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ। তাদের মসজিদে প্রবেশ করতে দেয়নি। তবে বাব আল-আসবাতে গিয়ে তারা আহত ফিলিস্তিনিদের সেবা করেছেন।

প্রসঙ্গত, প্রতি বছরই রমজানের শুরু থেকে আল-আকসায় এরকম উত্তেজনা শুরু হয়।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com