৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৯ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

ফের ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করল রাশিয়া

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ইউরোপে অনির্দিষ্টকালের জন্য গ্যাস সরবরাহ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে রাশিয়ার রাষ্ট্রায়ত্ত গ্যাস সংস্থা গ্যাজপ্রম।

শুক্রবার দেশটির গ্যাস সংস্থা এই ঘোষণা দেন। খবর আলজাজিরার।

গত বুধবার নর্ড স্ট্রিম ১ পাইপলাইনে কারিগরি ত্রুটি ঠিক করতে তিনদিনের জন্য জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে গ্যাজপ্রম। শনিবার পুনরায় গ্যাস সরবরাহ স্বাভাবিক হওয়ার নির্দিষ্ট তারিখ ছিল। কিন্তু নতুন কারিগরি ত্রুটির কথা বলে অনির্দিষ্টকালের জন্য গ্যাস সরবরাহ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে গ্যাজপ্রম।

গত ২৪ ফেব্রুয়ারি ইউক্রেনে সামরিক অভিযানের কারণে রাশিয়ার উপর নজিরবিহীন নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে যুক্তরাষ্ট্র ও এর মিত্রদেশগুলো। বিপরীতে রাশিয়াও ইউরোপে গ্যাস সরবরাহ তুলনামূলক অনেক কমিয়ে দেয়।

গত জুলাই মাসে পাইপলাইনটি ঠিক করার জন্য ১০দিন গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করে রাশিয়া। রাশিয়ার মতে, পাইপলাইনে কারিগরি ত্রুটির কারণে মাত্র ২০ শতাংশ গ্যাস সরবরাহ করা সম্ভব হচ্ছে।

ইউরোপের নেতৃবৃন্দের আশঙ্কা, রাশিয়া গ্যাস সরবরাহ বন্ধ করলে গ্যাসের দাম আরও কয়েকগুণ বৃদ্ধি পেতে পারে।

গত কয়েক মাসে ইউরোপে গ্যাসের দাম ৪০০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। গ্যাসের দাম ক্রমাগত বৃদ্ধি পেতে থাকলে ইউরোপে বিশেষত আগামী শীতকালে জীবনযাপনের ব্যয় কয়েকগুণ বৃদ্ধি পাবে। এর ফলে সরকারগুলোকে বিলিয়ন বিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যয় করতে হবে।

রাশিয়া গ্যাসকে ‘যুদ্ধাস্ত্র’ হিসেবে ব্যবহার করছে বলে মঙ্গলবার ফ্রান্সের জ্বালানি মন্ত্রী অভিযোগ করেছিলেন। অবশ্য এর আগে ফরাসি জ্বালানি কোম্পানি এনজির কাছে গ্যাস সরবরাহ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিল গ্যাজপ্রম।

তবে ফ্রান্সের অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছেন রাশিয়া। এক প্রতিক্রিয়ায় রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের মুখপাত্র বলেন, পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কারণে রাশিয়ার অবকাঠামো ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় গ্যাস সরবরাহ বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। তবে পশ্চিমা নিষেধাজ্ঞার কারণে গ্যাস সরবরাহে কী ধরনের ত্রুটি হয়েছে তা উল্লেখ করেননি ওই মুখপাত্র।

নর্ড স্ট্রিম ১ পাইপলাইনটির মাধ্যমে রাশিয়ার সেন্ট পিটার্সবাগ উপকূল থেকে বাল্টিক সাগরের নিচ দিয়ে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের জার্মানিতে গ্যাস সরবরাহ করা হয়। এ পাইপলাইনটির দৈর্ঘ্য এক হাজার ২০০ কিলোমিটার (৭৪৫মাইল)।

২০১১ সালে নর্ড স্ট্রিম ১ পাইপলাইনটি চালু করা হয়। এ পাইপলাইন দিয়ে প্রতিদিন সর্বোচ্চ ১৭০মি কিউবিক মিটার গ্যাস রাশিয়া থেকে জার্মানিতে সরবরাহ করা সম্ভব হয়।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com