১৩ই আগস্ট, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৯শে শ্রাবণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৪ হিজরি

বন্যাজনিত কারণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩৭

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : সারাদেশে ১৭ মে থেকে শুক্রবার (৫ আগস্ট) পর্যন্ত চলমান বন্যায় পানিবাহিতসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ২৯ হাজার ২৪১ জন। এছাড়া বন্যায় বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়ে এবং বন্যা সৃষ্ট দুর্ঘটনার শিকার হয়ে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৩৭ জনে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় দেশের বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়েছে, বন্যাজনিত কারণে গত ২৪ ঘণ্টায় (এক দিনে) নতুন করে ৩৬০ জন বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত হয়েছেন। তবে এই সময়ে বন্যাজনিত কারণে নতুন করে কারও মৃত্যু হয়নি।

প্রতিবেদনে জানানো হয়, দেশের বিভিন্ন জেলায় এখন পর্যন্ত ১৩৭ জন মারা গেছেন। সিলেট বিভাগেই ৭৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে সিলেট সদর উপজেলায় ২০, সুনামগঞ্জে ২৯, মৌলভীবাজারে ১৯ ও হবিগঞ্জে ৯ জন মারা গেছেন।

বন্যাজনিত কারণে ময়মনসিংহ বিভাগে মৃত্যু হয়েছে ৪৩ জনের। এর মধ্যে ময়মনসিংহে ৬, নেত্রকোণায় ২০, জামালপুরে ১০ ও শেরপুরে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এছাড়া রংপুর বিভাগে এখন পর্যন্ত বন্যায় ১৬ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে কুড়িগ্রামে ৫ ও লালমনিরহাটে ১১ জন মারা গেছেন। ঢাকা বিভাগের টাঙ্গাইলে বন্যায় একজনের মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ওই প্রতিবেদনে দেখা যায়, গত ১৭ মে থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত দেশে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৬ হাজার ৬৬৪ জন। তাদের মধ্যে এখন পর্যন্ত ডায়রিয়ায় একজনের মৃত্যু হয়েছে। আরটিআই (চোখের রোগ) রোগে আক্রান্ত হয়েছে এক হাজার ৬০০ জন, এ রোগে কারো মৃত্যু হয়নি।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, বন্যাকবলিত এলাকায় বজ্রপাতে আক্রান্ত হয়েছেন ১৭ জন, এছাড়াও ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। সাপের দংশনে ৩৬ জন আক্রান্ত হয়েছেন, দুজনের মৃত্যু হয়েছে। পানিতে ডুবে মৃত্যু হয়েছে ১০৭ জনের।

চর্মরোগে তিন হাজার ৬৩৯, চোখের প্রদাহজনিত রোগে ৪৭২ ও নানাভাবে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছেন ৮৭৬ জন। এছাড়া অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হয়েছেন ৫ হাজার ৮৫৪ জন এবং তাদের মধ্যে মারা গেছেন ৯ জন।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com