৮ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ২৫শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১৬ই রজব, ১৪৪৪ হিজরি

বাহরাইন সফরে ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগ বাহরাইনে সফরে গেছেন। রোববার (৪ ডিসেম্বর) তিনি ছোট এই উপসাগরীয় দেশটিতে পৌঁছান। সফরের শুরুতে বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুললাতিফ আল-জায়ানি বিমানবন্দরে ইসরায়েলি প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানান।

২০২০ সালে দুই দেশ সম্পর্ক স্বাভাবিক করার পর থেকে ছোট উপসাগরীয় দেশটিতে এটিই কোনও ইসরায়েলি রাষ্ট্রপ্রধানের প্রথম সফর। রোববার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইহুদি দেশের রাষ্ট্রপ্রধান হিসেবে প্রথম এই সফরের সময় ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট আইজ্যাক হারজোগ বাহরাইনের বাদশাহ হামাদ বিন ঈসা আল খলিফা এবং ক্রাউন প্রিন্স সালমান বিন হামাদ আল খলিফার সঙ্গে বৈঠক করেন।

বৈঠকে নেতারা আঞ্চলিক নিরাপত্তা এবং ‘দুই দেশের বেসরকারি খাতের প্রতিনিধিদের মধ্যে যোগাযোগ উৎসাহিত করার উপায়-সহ অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা করেছেন বলে সরকারি বাহরাইন নিউজ এজেন্সি জানিয়েছে।

সফরে ইসরায়েলের শিল্প ও ব্যবসায়িক প্রতিনিধিদের একটি প্রতিনিধি দলও হারজোগের সঙ্গে রয়েছে।

বাহরাইনের বাদশাহ বলেন, তার দেশ ‘একটি ন্যায্য, ব্যাপক এবং টেকসই শান্তি অর্জনকে সমর্থন করে যা ফিলিস্তিনি জনগণের বৈধ অধিকারের নিশ্চয়তা দেয় এবং এটি ফিলিস্তিনি ও ইসরায়েলি উভয় জনগণের পাশাপাশি এই অঞ্চলের সকল মানুষকে স্থিতিশীলতা, উন্নয়ন এবং সমৃদ্ধির দিকে পরিচালিত করবে।’

এদিকে বার্তাসংস্থা এএফপি জানিয়েছে, টুইটার অ্যাকাউন্টে পোস্ট করা ছবিতে বাহরাইনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুললাতিফ আল-জায়ানিকে বিমানবন্দরে ইসরায়েলের প্রেসিডেন্টকে স্বাগত জানাতে দেখা গেছে। তিনি টুইটারে জানান, বাদশাহ হামাদ বিন ঈসা আল-খলিফা এবং যুবরাজ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ সালমান বিন হামাদ আল-খলিফার সাথে তিনি দেখা করবেন।

হারজোগ বলেন, তিনি জলবায়ু পরিবর্তন, নিরাপত্তা বিষয়াদির পাশাপাশি অর্থনৈতিক সহযোগিতা জোরদার করার উপায় নিয়ে আলোচনা করবেন। এছাড়া বাহরাইন সফরের পর তিনি সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে যাবেন বলেও জানান হারজোগ।

পরে হারজোগ টুইটারে বলেন, তিনি হামাদের ‘শান্তি, বন্ধুত্ব এবং সহনশীলতার দৃষ্টিভঙ্গিকে’ স্বাগত জানিয়েছেন।

২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের নেতৃত্বে আলোচনা শুরুর পর, কয়েক দশকের মধ্যে প্রথম আরব রাষ্ট্র হিসেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও মরক্কো ইসরায়েলের সাথে সম্পর্ক স্বাভাবিক করে। এর আগে ইসরায়েল প্রতিবেশী মিশর ও জর্ডানের সঙ্গেও শান্তি চুক্তি করে।

এছাড়া চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ইসরাইল বাহরাইনের সাথে একটি প্রতিরক্ষা চুক্তি স্বাক্ষর করে এবং এ সময় নাফতালি বেনেট প্রথম ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশটি সফর করেছিলেন।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com