বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনালের আংশিক উদ্বোধন আজ

বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনালের আংশিক উদ্বোধন আজ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম: আধুনিক ও মানসম্পন্ন যাত্রী সেবার লক্ষ্যে বিমানবন্দর সম্প্রসারণের কাজ চলছে পুরোদমে। সিংগাপুরের চাঙ্গি বিমানবন্দরের আদলে নির্মাণাধীন ঢাকার হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের থার্ড টার্মিনালের আংশিক উদ্বোধন হতে যাচ্ছে আজ শনিবার। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিমানবন্দরে উপস্থিত থেকে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন।

এ উপলক্ষ্যে বেসামরিক বিমান চলাচল (বেবিচক) কর্তৃপক্ষ সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে। আংশিক উদ্বোধনের পর পরীক্ষামূলকভাবে বিমান বাংলাদেশের একটি ফ্লাইট তৃতীয় টার্মিনাল ব্যবহার করে ঢাকা ত্যাগ করবে। সেই ফ্লাইটের গ্রাউন্ড হ্যান্ডলিংও করবে রাষ্ট্রায়ত্ত এয়ারলাইনস। এ টার্মিনালের একাংশে ইতিমধ্যে পরীক্ষামূলকভাবে দুটি ফ্লাইট পরিচালনা করেছে বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। এদিকে আজ আংশিক উদ্বোধন হলেও যাত্রী চলাচলের জন্য টার্মিনালটি প্রস্তুত হতে সময় লাগবে আরো এক বছর। ২০২৪ সালের শেষে বিমানবন্দরের তৃতীয় টার্মিনাল ব্যবহারের সুবিধা পাবেন যাত্রীরা।

ঢাকার হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুটি টার্মিনালে যাত্রীর চাপ প্রতিনিয়ত বেড়ে চলায় নতুন টার্মিনাল স্বস্তির বার্তা দিচ্ছে। বর্তমানে দেশের বড় এই বিমানবন্দরে দুটি টার্মিনাল রয়েছে। প্রথম টার্মিনাল অভ্যন্তরীণ যাত্রীদের জন্য এবং দ্বিতীয় টার্মিনাল বিদেশে আসা-যাওয়ার জন্য। দুই টার্মিনাল ব্যবহার করে প্রতিদিন দেশ ও বিদেশের ৩০টি বিমান কোম্পানির ১২০ থেকে ১৩০টি ফ্লাইট ওঠানামা করে।

এসব ফ্লাইটে প্রতিদিন যাত্রী চলাচল করেন ১৯ থেকে ২১ হাজারের মতো। অর্থাত্ বছরে প্রায় ৮০ লাখ যাত্রী শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর ব্যবহার করছেন। তৃতীয় টার্মিনাল পুরোমাত্রায় চালু হলে আরো ১ কোটি ২০ লাখ যাত্রী এই বিমানবন্দর ব্যবহার করতে পারবেন। অর্থাত্ তখন বছরে প্রায় ২ কোটিরও বেশি যাত্রী চলাফেরা করতে পারবেন এই বিমানবন্দর দিয়ে। অ্যাভিয়েশন ঢাকা কনসোর্টিয়াম (এডিসি)-এর মাধ্যমে জাপানের মিত্সুবিশি ও ফুজিতা, জাপান এবং কোরিয়ার স্যামসাং টার্মিনালের নির্মাণকাজ সম্পন্ন করছে। বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল মো. মফিদুর রহমান বলেন, আজ শনিবার তৃতীয় টার্মিনাল উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী। এ দিন একটি পরীক্ষামূলক ফ্লাইট এখান থেকে পরিচালনা করা হবে। আগামী বছরের শেষের দিকে যাত্রীরা ব্যবহার করতে পারবেন এই টার্মিনাল। বহুগুণে বাড়বে যাত্রীসেবার মান। বর্তমানে নতুন নতুন অনেক এয়ারলাইনস থার্ড টার্মিনাল ব্যবহারে আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

থার্ড টার্মিনালটির ভবন হবে তিনতলা। ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে শুরু হয় এর নির্মাণকাজ। নির্মিতব্য হযরত শাহজালাল (রহ.) আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তৃতীয় টার্মিনালের নান্দনিক ডিজাইন, ব্যবহার মান ও গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলো আমলে নিয়ে বহু দেশ ও তাদের উড়োজাহাজ সংস্থা এটি ব্যবহারের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের আকাশপথে সংযোগ বাড়াতে চায় অনেক দেশ। আগের চেয়ে উড়োজাহাজ চলাচলও বাড়বে বলে প্রত্যাশা করছেন বিমানবন্দর সংশ্লিষ্টরা। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসসহ বিভিন্ন দেশের সরকারি-বেসরকারি ৩৬টি এয়ারলাইনস বিশ্বের ২০টি দেশের সর্বমোট ২৭টি গন্তব্যে ফ্লাইট পরিচালনা করছে। তবে তৃতীয় টার্মিনাল নির্মাণকে কেন্দ্র করে ফ্লাইট পরিচালনায় আগ্রহী দেশের সংখ্যা ৫৪টিতে পৌঁছেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *