২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ , ১৩ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৪ঠা রজব, ১৪৪৪ হিজরি

বিশ্বের সর্ববৃহৎ আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত, সতর্কতা জারি

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : যুক্তরাষ্ট্রের হাওয়াইয়ে অবস্থিত বিশ্বের সর্ববৃহৎ সচল আগ্নেয়গিরি মাউনা লোয়াতে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয়েছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের ভূতত্ত্ব জরিপের ভলকানিক অ্যাকটিভিটি সার্ভিস।

বার্তা সংস্থা রয়টার্স সোমবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, রোববার স্থানীয় সময় রাতে আগ্নেয়গিরিতে বিস্ফোরণের শব্দ শোনা যায়।

আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত শুরু হওয়ার পর সতর্কতা জারি করেছে সংস্থাটি। তবে তারা জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের কারণে বের হওয়া লাভা আগ্নেয়গিরির উপরের দিকেই (সামিট অ্যারিয়া) আছে এবং এর আশপাশে যেসব বসতি আছে সেগুলো ঝুঁকিতে নেই।

তবে সংস্থাটি জানিয়েছে, পূর্বের অভিজ্ঞতা অনুযায়ী, যখন কোনো আগ্নেয়গিরিতে অগ্ন্যুৎপাত হয় তখন শুরুর দিকে এটিতে বিভিন্ন পরিবর্তন পরিলক্ষিত হয় এবং খুব দ্রুততার সঙ্গে আগ্নেয়গিরি থেকে বের হওয়া লাভার পরিমাণ বেড়ে যেতে পারে। ফলে সবাইকে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছে তারা।

মাউনা লোয়ায় যখন রোববার প্রথম অগ্ন্যুৎপাত শুরু হয় তখন উপদেশমূলক সতর্কতা জারি করা হয়। পরবর্তীতে এটি পরিবর্তন করে বড় সতর্কতা জারি করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের ভূতত্ত্ব জরিপ তাদের সতর্কবার্তায় আরও জানিয়েছে, হাওয়াইন ভলকানো অবজারভেটোরি (এইচভিও) যত দ্রুত সম্ভব ড্রোন দিয়ে সার্বিক পরিস্থিতি দেখা এবং আরও ভালো তথ্য দেওয়ার চেষ্টা করবে।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রের ভূতত্ত্ব জরিপ পরবর্তী আপডেটে জানিয়েছে, অগ্ন্যুৎপাতের পর ওই স্থানে দুই ঘণ্টার মধ্যে বেশ কয়েকবার ভূমিকম্পের ঘটনা ঘটে। এরমধ্যে একটি ৪.২ মাত্রার ভূমিকম্প ছিল।

মাউনা লোয়া আগ্নেয়গিরিটি হাওয়াইয়ের একটি বড় দ্বীপের বেশিরভাগ অঞ্চলজুড়ে অবস্থিত। এটি প্রশান্ত মহাসাগরের ১৩ হাজার ৬৭৯ উচ্চতায় অবস্থিত। এখানে সর্বশেষবার বড় ধরনের অগ্ন্যুৎপাতের ঘটনা ঘটে ১৯৮৪ সালের মার্চ এবং এপ্রিল মাসে। সে বছর এ আগ্নেয়গিরির লাভা হিলো শহরের কাছাকাছি (৮.০৫ কিলোমিটার) চলে এসেছিল।

সূত্র: রয়টার্স

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com