২৬শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৫শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

ব্রিটিশ মুসলিমদের ভারতীয় পণ্য বয়কটের ডাক

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ভারতে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে ব্রিটেনের বিভিন্ন শহর থেকে ভারতীয় পণ্য বয়কটের ডাক দিয়েছে দেশটিতে বসবাসকারী মুসলমানরা। রাজধানী লন্ডন, বার্মিংহাম ও ওল্ডহ্যামসহ বিভিন্ন শহরের মুসলমানরা বিক্ষোভ ও সমাবেশ করেছেন।

শনিবার (১১ জুন) লন্ডনে ভারতীয় হাইকমিশনের সামনে বাংলাদেশি, পাকিস্তানি ও ভারতীয় মুসলমানরা মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.)-কে নিয়ে কটূক্তির প্রতিবাদে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন ও সমাবেশ করেন।

এর আগে শুক্রবার পূর্ব লন্ডনের বাংলাদেশি অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেটসের আলতাব আলী পার্কে বিশাল বিক্ষোভ সমাবেশ করে ইসলামিক রাইটস অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল, ইউকে। অন্যদিকে ওল্ডহ্যামে ভারতীয় পণ্য বয়কটের ডাক দিয়ে আলোচনা সভার আয়োজন করে ‘স্থানীয় প্রজন্ম বাংলাদেশ’ নামে একটি মানবাধিকার সংগঠন।

ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন কুমার জিন্দালকে গ্রেপ্তার করে বিচারের দাবি জানিয়েছে বার্মিংহামের স্থানীয় বিভিন্ন মুসলিম সম্প্রদায়ের আলেম, ওলামা ও কমিউনিটি নেতারা।

শুক্রবার সন্ধ্যায় পূর্ব লন্ডনের একটি হলে ‘জগতের শ্রেষ্ঠ মানব মহানবী (সা.) এর মর্যাদা এবং সমাজ গঠনে উলামায়ে কেরামের ভূমিকা’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে ব্রিটেনের সর্বদলীয় উলামা মাশায়েখদের সংগঠন বাংলাদেশি মুসলিমস ইউকে।

লন্ডনে ভারতীয় হাইকমিশনারের সামনে শান্তিপূর্ণ মানববন্ধন ও সমাবেশের আয়োজন করে মুসলিম একশন ফোরাম। দেশের বিভিন্ন শহর থেকে গাড়ি ও ট্রাক নিয়ে মুসলমানরা লন্ডনের ওই সমাবেশে যোগ দেয়। তারা ভারতীয় হাই কমিশনারের সামনে উই লাভ মুহাম্মদ, বয়কট ইন্ডিয়া এবং পানিশ নুপুর শর্মা অ্যান্ড নবীন কুমার’ সহ বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড ও ব্যানার নিয়ে যোগ দেয়। তাদের বিক্ষোভ ও সমাবেশের কারণে ভারতীয় হাই কমিশনারের সামনে ট্রাফিক যানজট সৃষ্টি হয়।

শুক্রবার (১০ জুন) বাদ জুমা ইসলামিক রাইটস অ্যান্ড ওয়েলফেয়ার কাউন্সিল ইউকের উদ্যোগে ও বিভিন্ন সংগঠনের সমর্থনে হোয়াইটচ্যাপলের আলতাব আলী পার্কে বিশাল প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন কমিউনিটি নেতা, সাংবাদিক কে এম আবু তাহের। সভায় বক্তারা অবিলম্বে কটূক্তিকারী ভারতের ক্ষমতাসীন দল বিজেপির মুখপাত্র নুপুর শর্মা ও দিল্লি শাখার গণমাধ্যম প্রধান নবীন কুমার জিন্দালকে গ্রেপ্তার করে বিচারের দাবি জানান।

অন্যথায় ভারতের পণ্য বর্জনসহ ভারতকে বয়কটের আহ্বান জানান। নেতারা বলেন, হযরত মোহাম্মদ (সা.) ও হযরত আয়েশা (রা.)-কে নিয়ে অবমাননাকর কটূক্তি করে বিশ্বের কোটি কোটি মুসলমানের কলিজায় আঘাত দিয়েছে বিজেপির ওই দুই নেতা। যা কোনভাবে মেনে নেওয়া যায় না।

দেশটির রাইটস কনসার্নের শফিক খানের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন মাওলানা আব্দুল কাদের সালেহ, ড. হাসনাত এম হোসেন, ব্যারিস্টার নাজির আহমদ, মাওলানা ছাদিকুর রহমান, মাওলানা এমদাদুর রহমান মাদানী, মাওলানা আব্দুল মালিক, ব্যারিস্টার আতাউর রহমান, ব্যারিস্টার মুজিবুর রহমান, কাউন্সিলার ওহিদ আহমদ, মাওলানা রফিক আহমদ, মাওলানা নাজির উদ্দিন বরুনী, সাংবাদিক শামসুল আলম লিটন, কমিউনিটি নেতা হাজী হাবিব, আলহাজ্ব নুর বকশ, আব্দুল্লাহ আল মুমিন প্রমুখ।

সভায় বক্তারা মহানবী (সা:) সম্পর্কে ভারতের মোদি সরকারের মুখপাত্রদের দৃষ্টান্তমূলক বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান। সভায় নেওয়া প্রস্তাবে অনতিবিলম্বে নুপুর শর্মা ও নবীন কুমার জিন্দালকে গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানানো হয়।

আরেক প্রস্তাবে পাকিস্তান, ইন্দোনেশিয়া, সৌদি আরব, কাতার, কুয়েতসহ বিভিন্ন মুসলিম রাষ্ট্রের প্রতিবাদ করায় ধন্যবাদ জানানো হয় এবং বাংলাদেশ সরকারকে মহানবী (সা.)-কে নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্যের নিন্দা জানানোর আহ্বান জানানো হয়।

সভায় ভারতে মুসলমানদের জান-মালের নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করা এবং ঐতিহাসিক মসজিদ ও স্থাপনার সংরক্ষণ করার জন্য ভারত সরকারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com