২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৩ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

মার্চে বেড়েছে মূল্যস্ফীতি

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : মাছ, মাংস, শাক-সবজি, কাপড়, চিকিৎসা সেবা, পরিবহন খরচসহ বিভিন্ন পণ্যের দাম ফেব্রুয়ারির তুলনায় মার্চে বেড়ে যাওয়ায় এর প্রভাব পড়েছে মূল্যস্ফীতিতে। তাই ফেব্রয়ারির তুলনায় মার্চে বেড়েছে মূল্যস্ফীতি ।

এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ৪৭ ভাগ। মার্চে তা বেড়ে দাঁড়ায় ৫ দশমিক ৫৫ ভাগ। তবে ২০১৮ সালের মার্চে মূল্যস্ফীতির হার ছিল ৫ দশমিক ৬৮ ভাগ।

মঙ্গলবার (৯ এপ্রিল) দুপুরে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভা শেষে মূল্যস্ফীতি বাড়ার তথ্য জানান পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, ‘শুধু ফেব্রুয়ারি মাসের সঙ্গে তুলনা করলে মার্চ মাসে মূল্যস্ফীতি একটু বেড়েছে। তবে মূল্যস্ফীতি কোনো সরল রেখা নয়।’

পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, মার্চে গ্রামীণ পর্যায়ে মূল্যস্ফীতির শতকরা হার দাঁড়ায় ৫ দশমিক ৩৮ ভাগ, যা ফেব্রুয়ারিতে ছিল ৫ দশমিক ২৬ ভাগ। শহর পর্যায়ে মূল্যস্ফীতি হার ৫ দশমিক ৮৬ ভাগ, যা ফেব্রুয়ারিতে ছিল ৫ দশমিক ৮৫ ভাগ।

মূল্যস্ফীতির হ্রাস-বৃদ্ধি পর্যালোচনা করলে দেখা যায়, মাছ, মাংস, শাক-সবজি, ভোজ্য তেল, ফলমূল ও অন্যান্য খাদ্যদ্রব্যের মূল্য মার্চে বেড়েছে। খাদ্যের বাইরে পরিধেয় বস্ত্র, চিকিৎসা সেবা, পরিবহনসহ বিভিন্ন পণ্যের দামও এই মাসে বেড়েছে।

মূল্যস্ফীতির বাড়ার কারণ জানতে চাইলে পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তাও বলেন, ‘এ সময়ে যে কাঁচা বাজার, বিশেষ করে শাক-সবজি, মাছ-মাংসের দাম বাড়ার কারণেই মূল্যস্ফীতি বেড়েছে।’

গত বছরের (২০১৮ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৯ সালের মার্চ) চলন্ত গড় মূল্যস্ফীতির হার ৫ দশমিক ৪৮ ভাগ। এর এক বছর আগে (২০১৭ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৮ সালের মার্চ) চলন্ত গড় মূল্যস্ফীতির হার ছিল শতকরা ৫ দশমিক ৮২ ভাগ।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com