২৭শে নভেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১লা জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

মোবাইল কলরেটের সামঞ্জস্যতা জরুরি

মোবাইল কলরেটের সামঞ্জস্যতা জরুরি

শে খ সা য় ম ন পা র ভে জ হি মে ল

সম্প্রতি বাংলাদেশে মোবাইল ফোনের কলরেট বৃদ্ধি পাওয়াতে গ্রাহকরা ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন। পূর্বে মিনিটে সর্বনি¤œ কলরেট ৪৫ পয়সা আর সর্বোচ্চ ২ টাকা ছিল। জানামতে,নতুন ব্যবস্থায় অননেট আর অফনেট তুলে দেয়া হয়েছে করা হয়েছে ফ্ল্যাট রেট। অননেট হল একই অপারেটরের মধ্যে কল আদান প্রদান আর অফনেট হল এক অপারেটর থেকে অন্য অপারেটরে কল আদান-প্রদান।

নতুন ফ্ল্যাট কলরেট চালু হওয়ার আগে বর্তমানে সর্বনি¤œ অননেট কলচার্জ প্রতি মিনিট ছিল ২৫ পয়সা ও অফনেট ৬০ পয়সা। সর্বোচ্চ চার্জ প্রতি মিনিট ২ টাকা৷ নতুন ব্যবস্থায় বিটিআরসি সর্বোচ্চ ২ টাকা ঠিক রেখে অফনেট এবং অননেট বাদ দিয়ে সর্বনি¤œ কলচার্জ করেছে ৪৫ পয়সা। অফনেট-অননেট ব্যবস্থা তুলে দেয়া হয়েছে।

বিটিআরসির এক সমীক্ষায় বলা হয়,বাংলাশে এখন মোট মোবাইল ফোন গ্রাহক ১৫ কোটির বেশি। মোট অপারেটর ৪টি- গ্রামীণ, রবি, বাংলালিংক এবং টেলিটক। এরমধ্যে সবচেয়ে বেশি গ্রাহক গ্রামীণের, প্রায় ৭ কোটি৷ আর সবচেয়ে কম গ্রাহক টেলিটকের, ৩০ লাখ৷ রবির গ্রাহক প্রায় সাড়ে ৪ কোটি এবং বাংলালিংক- এর গ্রাহক ৩ কোটির বেশি। মাবাইল ফোনের নতুন কলচার্জ নিয়ে আছে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। আগে সর্বনি¤œ কলরেট ২৫ পয়সা ছিল। আর সর্বোচ্চ ২ টাকা-এর মানে এই নয় যে সর্বনি¤œ কলরেট ২৫ পয়সাই ছিল। অপারেটররা সর্বনি¤œ এবং সার্বোচ্চ সীমার মধ্যে থেকে কল চার্জ নির্ধারণ করতেন।

কিন্তু এখন আর অফনেট -অননেট নেই। ফলে ফ্ল্যাট রেট হবে। অপারেটররা এখন এই সর্বনি¤œ ফ্ল্যাট রেট প্রতি মিনিট কত ধার্য করেন তার ওপর আসলে নির্ভর করবে গ্রাহকের খরচ বাড়বে কী কমবে। বাংলাদেশের অধিকাংশ গ্রাহকই আসলে জানেন না তার মোবাইল ফোনের প্রতি মিনিট কলচার্জ কত। বাংলাদেশে মোট মোবাইল ফোন কলের শতকরা কত ভাগ অননেট আর কতভাগ অফনেট, তার কোনো সঠিক পরিস্যংখান জানা যায়নি। তবে যে অপারেটরের গ্রাহক বেশি তার অফনেট কল কম। আর যে অপারেটরের গ্রাহক কম তার অফনেট কল বেশি হওয়ার কথা। আর অফনেট কলের চার্জ যেহেতু অনেক বেশি ছিল তাই গ্রাহকরা খরচ কমাতে একাধিক অপারেটরের মোবাইল সংযোগ ব্যবহারে বাধ্য হন। এখন অফনেট আর অননেট ব্যবধান ঘুচিয়ে দিয়ে ফ্ল্যাট রেট করায় মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলো বিলের নানা প্যাকেজ অফার না দিয়ে সেবার মান বাড়াতে বাধ্য হবে বলে মনে করছেন অনেকেই।

এদিকে মোবাইল ফোনের কলরেট নিয়ে কথা হলেও অনেক গ্রাহক আসলে সে সম্পর্কে সচেতন না। শত শত প্যাকেজ আর নানা অফারের হিসেবের ভিড়ে তা বোঝাও কঠিন। যাই হোক, বর্তমান মোবাইল ফোনের কল রেট গ্রাহক সাধারণের সাধ্যের বাইরে, কর্তৃপক্ষ ও সরকারের এ বিষয়ে দৃষ্টি দেওয়া দরকার।

লেখক : শিক্ষার্থী, ফার্মেসি বিভাগ, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com