২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৩ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

যেসব সুবিধা পাবেন এবার হজে অংশগ্রহণকরীরা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে নির্ধারিত সংখ্যক ধর্মপ্রাণ ব্যক্তিকে হজে অংশগ্রহণের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে হজের কার্যক্রম পুরোপুরি শুরু হয়ে গেছে। তবে হজ ও ওমরাহ কর্তৃপক্ষ আগামী ১৭ ও ১৮ জুলাই হজে অংশগ্রহণকারীদের গ্রহণ করাসহ বিভিন্ন সুবিধার ও গুরুত্বপূর্ণ একাধিক সংবাদ প্রকাশ করেছে আরব নিউজ।

আগামী ১৯ জুলাই আরাফাতের ময়দানে উপস্থিত হওয়ার মাধ্যমে পবিত্র হজ পালন করবেন এবারের অংশগ্রহণকারীরা। হজে অংশগ্রহণকারীদের জন্য ব্যাপক নিরাপত্তা ও সুযোগ-সুবিধা দেবে হজ ও ওমরাহ কর্তৃপক্ষ।

মহামারি করোনার প্রাদুর্ভাবের কারণে দ্বিতীয় বারের মতো শুধু সৌদিতে অবস্থানকারী স্থানীয় ও প্রবাসীদের মধ্য থেকে মাত্র ৬০ হাজার লোক এবারের হজে অংশগ্রহণ করবেন। হজে অংশগ্রহণকারীরা সহজ ও স্বাভাবিকভাবে হজ সম্পাদনে অত্যাধুনিক স্মার্ট কার্ডের বিশেষ সুযোগ-সুবিধা পাবেন।

মক্কার গভর্নর ও সেন্ট্রাল হজ কমিটির প্রধান প্রিন্স খালেদ আল ফয়সালের উপস্থিতিতে এবারই প্রথম হজে অংশগ্রহণকারীদের জন্য স্মার্ট কার্ড চালু করেছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। প্রথম বারের মতো অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে হজযাত্রীদের সেবা দিতে স্মার্ট কার্ডের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

স্মার্ট কার্ডের সুবিধা : স্মার্ট কার্ডের সাহায্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হজে অংশগ্রহণকারীদের সব তথ্য জানা যাবে। আরও যেসব সুবিধা থাকবে এ কার্ডে; তাহলো-

> হজের অনুমোদন;

> হজের স্থানগুলোতে হাজিদের লাগেজ স্থানান্তর;

> কাবা শরিফের তাওয়াফ, আরাফায় অবস্থানের (নির্ধারিত স্থান), মিনা ও মুজদালিফায় যাতায়াতের পথ ও দিকনির্দেশনা নির্ণয় করা যাবে।

> হাজিদের ক্যাম্পে ও হোটেলে প্রবেশ ও গতিবিধি নিয়ন্ত্রণ এবং পরিবহন ব্যবহারের সুবিধাও গ্রহণ করা যাবে।

> স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে ১.৬ মিলিয়ন বর্গমিটার এলাকা নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

যানবাহনের বিশেষ ব্যবস্থা : মক্কা, আরাফা, মিনা ও মুজদালিফায় আসা-যাওয়ার সুবিধার্থে পরিবহন সেবায় প্রস্তুত থাকবে ৩ হাজার বাস। প্রতিটি বাসে ২০ জন হজযাত্রী চলাচল করবেন। লাল,সবুজ, হলুদ ও নীল রঙের ৪টি বিশেষ ট্র্যাকে চলাচল করবে বাসগুলো। এ বাসগুলো হজযাত্রীদের আবাসন ও হজের রোকনগুলো আদায়ে আসা-যাওয়া ব্যবহৃত হবে।

এছাড়াও স্বাস্থ্য সেবায় থাকবে যেসব সুবিধা-

> শতাধিক দক্ষ স্বাস্থ্য স্বেচ্ছাসেবক নারী-পুরুষ হজযাত্রীদের দেখাশোনা করার জন্য প্রস্তুত থাকবেন।

> জরুরি স্বাস্থ্য সেবা দিতে ১৭০টি গাড়ি, ১৪৪টি অ্যাম্বুলেন্স, ২২টি মোটরসাইকেল, ১০টি বিশেষ গাড়ি ও জরুরি ভিত্তিতে থাকবে আরও দুইটি গাড়ি।

> মক্কা-আরাফা-মিনা ও মুজদালিফায় ৫১টি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র থাকবে।

> স্বাস্থ্য সেবায় ৩০০ স্বাস্থ্য কর্মী নিয়োজিত থাকবে। এদের মধ্যে ৬৬ শতাংশ পুরুষ ও ৩৪ শতাংশ নারী স্বাস্থ্য কর্মী থাকবে।

> স্পেশালিস্ট চিকিৎসকসহ মোট ৫৯৪ জন ডাক্তার থাকবে।

বিশেষ করে স্মার্ট কার্ডের সাহায্যে স্বয়ংক্রিয়ভাবে হজে অংশগ্রহণকারী কার্ডধারীর সব তথ্য জানা যাবে। এ লক্ষ্যে প্রিন্স খালেদ আল শুমাইসি সিকিউরিটি কন্ট্রোল সেন্টার উদ্বোধন করেছেন। এই স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে ১.৬ মিলিয়ন বর্গমিটার নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

উল্লেখ্য, হজ ও ওমরাহ মন্ত্রণালয় আগামী ১৭-১৮ জুলাই থেকে হজযাত্রীদের গ্রহণ করবে। মহামারি করোনা সংক্রমণ রোধে স্বাস্থ্যবিধি মেনে এবার সৌদিতে অবস্থানরত ৬০ হাজার লোক হজ পালন করবেন। স্মার্ট কার্ডের মাধ্যমে হাজে অংশগ্রহণকারীদের সার্বিক গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করা হবে। আগামী ৮ জিলহজ (১৮ জুলাই) আনুষ্ঠানিকভাবে হজ শুরু হবে। এরপর দিন ৯ জিলহজ আরাফার ময়দানে উপস্থিত হওয়ার মাধ্যমে পবিত্র হজ পালন করবেন এবারের হজে অংশগ্রহণকারীরা।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com