লন্ডনে লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভ!

লন্ডনে লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভ!

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : লন্ডনে করোনাভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে চলমান লকডাউনের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ মিছিল হয়েছে। হাজার হাজার মানুষ লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভে অংশ নেয়।

এ সময় তারা প্রধানমন্ত্রীর ১০ নম্বর ডাউনিং স্ট্রিটের বাসভবন এবং পার্লামেন্ট ভবনে টেনিসবল নিক্ষেপ করে। শোভাযাত্রার বিশাল ব্যানারে লেখা ‘দ্য বরিস ভ্যারিয়েন্ট’ শনিবার, ২৭ জুন লন্ডনে এই লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভ মিছিল হয়। সেখানে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ম্যাট হ্যানককের গ্রেপ্তারেরও দাবি জানান কেউ কেউ।

ইংল্যান্ডে ২১ জুন থেকে বিধি-নিষেধ তুলে নেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু ভারতীয় ডেল্টা ভেরিয়েন্ট ছড়িয়ে পড়ায় এই ঘোষণা কমপক্ষে চার সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়া হয়। এই ঘোষণার পর বিক্ষোভকারীরা হাইডপার্ক থেকে অক্সফোর্ড স্ট্রিট হয়ে পার্লামেন্ট ভবনের দিকে বিক্ষোভ মিছিল করে। এ সময় তারা পতাকা বহন করে, শীষ দিয়ে, চিৎকার করে অবিলম্বে বিধি-নিষেধ প্রত্যাহারের দাবি জানায়।

ইংল্যান্ডের দক্ষিণ-পশ্চিম উপকূলের ডেভন থেকে বিক্ষোভে অংশ নেওয়া আইইন ম্যাককাসল্যান্ড বলেন, ‘এই বিক্ষোভে আমার অংশ নেওয়ার প্রধান কারণ লকডাউনে আমার স্বাধীনতা ও অধিকার হরণ করা হচ্ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের সমবেত হওয়া, ভ্রমণ এবং কাজ করার স্বাধীনতা আছে, বিধি-নিষেধ এসব অধিকার হরণ করছে। আমি সত্যিই সরকারের ওপর বেশ ক্ষুব্ধ, এজন্য সবাই এখানে এসেছে।’

একটি প্ল্যাকার্ডে স্বাস্থ্যমন্ত্রী ‘হ্যানকককে গ্রেপ্তারের’ দাবি জানানো হয়েছে। যদিও গতকাল থেকেই তিনি আর স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাই। শুক্রবার সরকারি অফিসের ভেতরে একজন সহযোগীকে চুম্বন করার সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশের পরে তিনি শিরোনাম হয়ে ওঠেন। নানামুখী সমালোচনার ফলে, এক রমকম বাধ্য হয়েই, ক্ষমা চেয়ে, স্বাস্থ্যমন্ত্রীর পদ থেকে তিনি পদত্যাগ করেছেন। ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় জানিয়েছে, ম্যাট হ্যানককের পরিবর্তে সাবেক অর্থমন্ত্রী পাকিস্তানি বংশোদ্ভূত সাজিদ জাভিদ দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *