২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ইং , ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১২ই রজব, ১৪৪২ হিজরী

শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আসছে হাতিয়া, কুতুবদিয়া ও নিঝুম দ্বীপ

শতভাগ বিদ্যুতের আওতায় আসছে হাতিয়া, কুতুবদিয়া ও নিঝুম দ্বীপ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম :  হাতিয়া, কুতুবদিয়া ও নিঝুম দ্বীপের ৪২ হাজার পরিবারকে বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আনার উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। এই তিন দ্বীপে ‘শতভাগ, নির্ভরযোগ্য ও টেকসই বিদ্যুতায়ন’ শীর্ষক প্রকল্প হাতে নিচ্ছে বিদ্যুৎ বিভাগ। প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৮৪ কোটি ৩৬ লাখ টাকা। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (বিউবো)। পরিকল্পনা কমিশনের এক কর্মকর্তা বলেন, প্রকল্পটির প্রক্রিয়াকরণ শেষ হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) আগামী বৈঠকে উপস্থাপন করা হবে। অনুমোদন পেলে চলতি বছরে শুরু করে ২০২৩ সালের জুনের মধ্যে বাস্তবায়নের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, ২০২১ সালের মধ্যে সারাদেশে শতভাগ বিদ্যুতায়ন কর্মসূচির অংশ হিসেবে বিদ্যুৎ বিভাগ পার্বত্য এলাকা, দ্বীপাঞ্চল ও চরাঞ্চলসহ শতভাগ বিদ্যুতায়নের একটি রোডম্যাপ তৈরি করেছে। এই রোডম্যাপের সুপারিশ অনুযায়ী নোয়াখালীর হাতিয়া উপজেলার হাতিয়া ও নিঝুম দ্বীপ এবং কক্সবাজার জেলার কতুবদিয়া দ্বীপে শতভাগ বিদ্যুৎ সুবিধা পৌঁছে দেওয়ার জন্য প্রকল্পটি বাস্তবায়নের প্রস্তাব করা হয়েছে।

সাধারণ অর্থনীতি বিভাগের সদস্য (সিনিয়র সচিব) ড. শামসুল আলম বলেন, দেশে শতভাগ বিদ্যুতায়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য প্রকল্পটি গুরুত্বপূর্ণ। তিনি বলেন, সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের আওতায় ১৪ হাজার ২০০ কিলোমিটার নতুন লাইন নির্মাণ, ১১৫টি সাব-স্টেশন নির্মাণ-আধুনিকায়ন ও ১৪ লাখ নতুন গ্রাহক সংযোগের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা ছিল। অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায়ও বিদ্যুৎ খাত বিশেষ গুরুত্ব পেয়েছে।

তিনি জানান, প্রকল্পের মূল কার্যক্রম হলো- চারটি নতুন ৩৩/১১ কেভি উপকেন্দ্র নির্মাণ, কুতুবদিয়া চ্যানেলে ৬ কিলোমিটার ৩৩ কেভি সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপন, মুকতারিয়া-নিঝুম দ্বীপ খালে ১.৫ কিলোমিটার ১১ কেভি সাবমেরিন ক্যাবল স্থাপন, নতুন করে মোট ৬৭৬ কিলোমিটার বিতরণ লাইন নির্মাণ, বিদ্যমান ৩৫ কিলোমিটার বিতরণ লাইন রেনোভেশন, মোট ২৭০০টি পোল মাউটেন্ড বিতরণ উপকেন্দ্র স্থাপন এবং অফিস ভবন কাম রেস্ট হাউজ, ডরমেটরি ও সীমানা দেয়াল তৈরি করা হবে।

এ বিষয়ে প্রকল্পটির দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগের সদস্য (সচিব) নাসিমা বেগম বলেন, সরকারের রূপকল্প ২০২১ অনুসারে দেশে শতভাগ বিদ্যুতায়ন কর্মসূচি বাস্তবায়নের জন্য প্রকল্পটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। দ্বীপাঞ্চলের প্রায় ৪২ হাজার গ্রাহক নির্ভরযোগ্য বিদ্যুৎ সুবিধার আওতায় আসবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি
Design & Developed BY ThemesBazar.Com