২৯শে জুন, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৫ই আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২৮শে জিলকদ, ১৪৪৩ হিজরি

হজের সময় নারীরা কি মুখ খোলা রাখবে?

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : পবিত্র হজর পালনের সময় অনেক নারী তাদের মুখ খোলা রাখেন। বোরকা পড়া সত্ত্বেও হজপালনেচ্ছু নারীরা কেন মুখ খোলা রাখেন? এটা কি অজ্ঞতা নাকি ইসলামে বিধান? হজের সময় নারীরা বোরকা পড়া সত্বেও মুখ খোলা রাখবে নাকি ঢেকে রাখবে?

হজের সময় অনেক নারীরা মাসআলা না জানার কারণে কিংবা গাফলতির কারণে বোরকা পরা সত্ত্বেও মুখ খোলা রাখেন। তারা মনে করেন, ইহরাম অবস্থায় মুখ ঢাকা নিষেধ। এ কারণে তারা মুখ খোলা রাখেন। না বিষয়টি সঠিক নয় কারণ, পর পুরুষ থেকে পর্দা করা সব সময়ের বিধান। হজের সময়টিও এর ব্যতিক্রম নয়।

হজের সময়ও নারীদের জন্য মুখ খোলা রাখা বৈধ নয়। এ হজ পালনেচ্ছু নারীরা এমনভাবে চেহারা ঢেকে রাখবে যাতে মুখমণ্ডলের সঙ্গে কাপড় লেগে না থাকে। বর্তমানে (হেলমেটের মতো) এক ধরনের ক্যাপ পাওয়া যায়, যা পরলে সহজেই চেহারার পর্দা হয়ে যায়।

হজের সময় নারীরা ইহরাম অবস্থায় পর্দা করবেন। হাদিসের বর্ণনা থেকে তা প্রমাণিত। হজরত আলি রাদিয়াল্লাহু আনহু বর্ণনা করেন-

أَنَّ عَلِيًّا كَانَ يَنْهَى النِّسَاءَ عَنِ النِّقَابِ، وَهُنَّ حَرَمٌ، وَلَكِنْ يُسْدِلْنَ الثَّوْبَ عَنْ وُجُوهِهِنَّ سَدْلًا

‘তিনি নারীদেরকে নিষেধ করতেন তারা যেন ইহরাম অবস্থায় নেকাব ব্যবহার না করে। তবে চেহারার উপর দিয়ে কাপড় ঝুলিয়ে দেবে।’ (মুসান্নাফে ইবনে আবি শায়বা, ফাতহুল বারী)

নারীদের মনে রাখতে হবে তাদের জন্য পর্দা করা ফরজ। হজ পালন করতে গিয়ে একটি দায়েমি ফরজ থেকে বিরত থাকার কোনো সুযোগ নেই। তাই ইহরাম অবস্থায়ও তারা নেকাবের পরিবর্তে এমন পোশাক ব্যবহার করবে যাতে তাদের পর্দাও ঠিক থাকে এবং মুখের উপর ফাঁক রেখে নেকাবও পড়া হয়।

নারীদের জন্য হজের মতো একটি মহান পবিত্র ইবাদতের সময় শরিয়তের পর্দার বিধান লঙ্ঘণ করে বেপর্দা হওয়ার গুনাহ থেকে নিজেকে মুক্ত রাখা জরুরি।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহর সব নারীকে পর্দার করার তাওফিক দান করুন। যারা হজ পালন করবেন তাদেরকেও পর্দা পালনের তাওফিক দান করুন। সব অজ্ঞতা ও অজানা বিষয় থেকে হেফাজত করুন। আমিন।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com