২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৭ই সফর, ১৪৪৩ হিজরি

হজ নিয়ে যে গুঞ্জন চলছে, তা সত্য নয় : ধর্ম মন্ত্রণালয়

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : এবার হজ পালনে বিশ্বের অন্য দেশ থেকে মানুষ গ্রহণ করা হবে কি না, হলে কোন দেশ থেকে কতজন নেওয়া হবে, তাঁদের জন্য কী শর্ত দেওয়া হবে, সার্বিক ব্যবস্থাপনা কী হবে—এর সব কিছু এককভাবে সৌদি আরবের সিদ্ধান্তের বিষয়।

তাদের সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে যেসব দেশকে অনুমতি দেওয়া হবে, শুধু সেই সব দেশের মানুষ হজ পালনের সুযোগ পাবেন। এ বিষয়ে গোপনীয় কোনো সিদ্ধান্ত নেওয়ার সুযোগ নেই। সৌদি আরব তাদের সিদ্ধান্ত আনুষ্ঠানিকভাবে জানাবে। সে অনুযায়ীই প্রস্তুতি নিতে হবে। তাই হজ নিয়ে যে গুঞ্জন চলছে, তা সত্য নয় বলে জানিয়েছেন ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নীতিনির্ধারকরা।

সম্প্রতি সৌদি আরবের বেনামি সূত্রের বরাত দিয়ে হজের সুযোগ তৈরি হচ্ছে বলে গুঞ্জন ছড়িয়েছে। এ বিষয়ে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেন, ‘হজ নিয়ে বিভ্রান্তি সৃষ্টিকারীদের ধিক্কার জানাচ্ছি। হজের বিষয়ে সৌদি সরকার আমাদের জানালে আমরা সেটা আনুষ্ঠানিকভাবে দেশবাসীকে জানাব।’

তিনি বলেন, হজ নিয়ে অন্য কারো তথ্যে কান না দিয়ে শুধু সরকারি তথ্যের ওপর নির্ভর করুন। সরকারের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমের মাধ্যমে প্রকৃত তথ্য দেশবাসীকে জানিয়ে দেব।

হজ শুরু হওয়ার অন্তত পাঁচ মাস আগে বাংলাদেশ থেকে হজ যাত্রার সব প্রস্তুতি চূড়ান্ত হতে থাকে। এ বছর হজের সময় বাকি আছে আর মাত্র দুই মাস; কিন্তু এখনো সৌদি আরব থেকে হজের বিষয়ে কোনো সিদ্ধান্ত পায়নি সরকার। তাই এবার বাংলাদেশ থেকে হজে যাওয়া যাবে কি না, এমন সন্দেহ থাকছেই। হিজরি সনের জিলহজ মাসের ৮ থেকে ১২ তারিখ সৌদি আরবে পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্বব্যাপী ইসলাম ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় এই ধর্মীয় অনুষ্ঠান করোনাভাইরাসের কারণে গতবার আন্তর্জাতিকভাবে বন্ধ ছিল। অভ্যন্তরীণভাবে ১০ হাজার মানুষকে হজ করার সীমিত সুযোগ দিয়েছিল সৌদি সরকার। চাঁদ দেখা যাওয়া সাপেক্ষে আগামী ২১ জুলাই ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হতে পারে। আর হজ শুরু হতে পারে ১৯ জুলাই। সেই হিসাবে গত মার্চ মাসেই হজ গমনেচ্ছুদের যাত্রার বিমান শিডিউল ঠিক হওয়ার কথা। কিন্তু অনিশ্চয়তা থাকায় হজসংক্রান্ত অন্যান্য কাজ সম্পন্ন করলেও চূড়ান্ত পর্বের কাজে হাত দিতে পারছে না ধর্ম মন্ত্রণালয়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা জানান, বিদেশিদের হজ পালনের সুযোগের কথা বিভিন্ন মাধ্যমে তাঁরাও শুনছেন। সৌদি সরকারের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক প্রস্তাব না আসা পর্যন্ত এ বিষয়ে আশাবাদী হওয়ার মতো কিছু বলতে পারছেন না ধর্মমন্ত্রী ফরিদুল হক খান।

তিনি বলেন, যদি হজ পালনের সুযোগ আসে তাহলে সৌদি সরকার যতজনের হজ পালনের সুযোগ দেবে, তাদের দ্রুত পাঠানোর মতো প্রস্তুতি আমাদের আছে।

অন্যদিকে ধর্মবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব নূরুল ইসলাম সম্প্রতি সাংবাদিকদের বলেছেন, হজের বিষয়ে সৌদি আরবের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। আমরা তাদের সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছি। অন্যদিকে করোনা নিয়ে ভারতীয় পরিস্থিতি বাংলাদেশের বিপক্ষে যাবে কি না—এ প্রশ্নের জবাবে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী বলেন, এই আশঙ্কা অমূলক নয়।

ধর্ম মন্ত্রণালয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন কর্মকর্তা জানান, করোনায় বর্তমান বিশ্বের বড় মনোযোগ এখন ভারতের দিকে। ভারতীয় করোনা ভেরিয়েন্টের আক্রমণ বাংলাদেশেও এসেছে। এই অবস্থায় বাংলাদেশ থেকে সৌদি আরবে হজ পালনের সম্ভাবনা ক্রমেই সংকুচিত হয়ে আসছে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com