২৯ বছর পর মুম্বাই হামলার অন্যতম অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

২৯ বছর পর মুম্বাই হামলার অন্যতম অভিযুক্ত গ্রেপ্তার

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ে ধারাবাহিক বিস্ফোরণের ঘটনার অন্যতম অভিযুক্ত দাউদ ইব্রাহিমের ঘনিষ্ঠ আবু বকরকে গ্রেপ্তার করেছে ভারতীয় গোয়েন্দারা। মুম্বাই হামলার ২৯ বছর পর গ্রেপ্তার হলো এই ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ সন্ত্রাসী। শুক্রবার (৪ ফেব্রুয়ারি) সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তাকে।

সূত্রের খবর, এখন আমিরাত সরকারের সঙ্গে আবু বকরের প্রত্যর্পণের আইনি প্রক্রিয়া চালাচ্ছে ভারত সরকার।

১৯৯৩ সালের মুম্বাই হামলার অন্যতম অভিযুক্ত আবু বকর ভারত থেকে পালানোর পর বিভিন্ন সময় পাকিস্তান ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে আত্মগোপন করেছিল। ১৯৯৭ সালেই তার বিরুদ্ধে ‘রেড নোটিশ’ জারি হয়। যদিও ভারতীয় গোয়েন্দারা কিছুতেই তাকে করতে ধরতে পারছিল না। তবে শেষরক্ষা আর হলো না। হাতেনাতে ধরা পড়ল এ সন্ত্রাসী।

আবু বকরের পুরো নাম আবু বকর আব্দুল গফর শেখ। এই অপরাধী সোনা, কাপড়, ইলেকট্রনিক সরঞ্জাম পাচারের সঙ্গেও জড়িত। এ কাজে তার সঙ্গী ছিল দাউদ কোম্পানির দুই সদস্য মহম্মদ ও মুস্তাফা দোসা।

২০১৯ সালে সংযুক্ত আরব আমিরাতেই আবু বকরকে গ্রেপ্তার করেছিল ভারতীয় গোয়েন্দাদের একটি দল। কিন্তু সেবার নথি সংক্রান্ত জটিলতায় ছাড়া পেয়ে যায় সে। এবার অবশ্য সেই সম্ভাবনা নেই। গ্রেপ্তার হওয়ার পর প্রত্যর্পণ প্রক্রিয়া চালাচ্ছেন গোয়েন্দারা।

কিছুদিন আগেই পাকিস্তানের করাচিতে মৃত্যু হয়েছে ১৯৯৩ সালে মুম্বাইয়ে ধারাবাহিক বোমা বিস্ফোরণের অন্যতম অভিযুক্ত সেলিম গাজীর। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার। মুম্বাই হামলার ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’দের তালিকায় নাম ছিল দাউদ ও ছোটা শাকিলের ঘনিষ্ঠ সেলিম গাজির। মুম্বাই হামলার পরই দেশ ছেড়ে পালায় সে।

উল্লেখ্য, ১৯৯৩ সালের ১২ মার্চ মুম্বাইয়ে ধারাবাহিক বিস্ফোরণর ঘটনা ঘটে। ওই হামলায় মৃত্যু হয় ২৫৭ জনের। আহত হয় ৭০০-র বেশি। মুম্বাই বিস্ফোরণের মূল অভিযুক্ত দাউদ ইব্রাহিম পাকিস্তানে রয়েছেন বলে জানা যায়। আরেক অন্যতম অভিযুক্ত টাইগার মেমনও পাকিস্তানে বলেই খবর। টাইগারের ভাই ইয়াকুব মেমনের ফাঁসি হয়েছে ২০১৫ সালের ৩০ জুলাইয়ে।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *