৬ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২১শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৯ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

৩৮ বছর পর পদত্যাগ করছেন অ্যান্থনি ফাউসি!

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেসের (এনআইএআইডি) প্রধান এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রধান চিকিৎসা উপদেষ্টার পদ থেকে পদত্যাগ করতে যাচ্ছেন মহামারি ও সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ড. অ্যান্থনি ফাউসি।

চলতি বছরের ডিসেম্বরে পদ ছাড়বেন তিনি। মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ৩৮ বছর ধরে এনআইএআইডির পরিচালক হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন ড. অ্যান্থনি ফাউসি। তিনি বলেছেন, ক্যারিয়ারের ‘পরবর্তী অধ্যায় অনুসরণ করতে’ আগামী ডিসেম্বরে এনআইএআইডি’র প্রধান এবং বাইডেনের প্রধান চিকিৎসা উপদেষ্টার পদ ছেড়ে দেবেন তিনি।

৮১ বছর বয়সী ফাউসি এক বিবৃতিতে বলেছেন, এনআইএআইডির নেতৃত্ব দেওয়া আজীবন সম্মানের বিষয়। তার ভাষায়, ‘আমি আমার কর্মজীবনের পরবর্তী অধ্যায়ে পা দেওয়ার লক্ষে চলতি বছরের ডিসেম্বরে সরকারি সব পদ ছেড়ে দেব। এই ভূমিকাগুলো আমার কাছে আজীবনের সম্মান। সরকারি পদ থেকে ইস্তফা দিলেও আমি অবসর নিচ্ছি না।’

এছাড়া করোনা মহামারি চলাকালীন তিনি যুক্তরাষ্ট্রের কোভিড -১৯ মোকাবিলার প্রধান মুখ হয়ে ওঠেন। সোমবার প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এক বিবৃতিতে ফাউসিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন। বিবৃতিতে বাইডেন লিখেছেন, ‘তার (ফাউসির) কারণে যুক্তরাষ্ট্র এখন শক্তিশালী, আরও স্থিতিশীল এবং স্বাস্থ্যকর।’

এর আগে গত জুলাই মাসে ড. অ্যান্থনি ফাউসি বলেছিলেন, প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের বর্তমান মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই তিনি অবসর নেবেন। ১৯৬৮ সালে যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় স্বাস্থ্য ইনস্টিটিউটে যোগ দেন ফাউসি। সেসময় যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ছিলেন লিন্ডন জনসন।

এরপর ১৯৮৪ সালে এইডস মহামারি ছড়িয়ে পড়ার সময় ফাউসি এনআইএআইডি, সংক্রামক জাতীয় রোগ শাখার পরিচালক নিযুক্ত হন। তিনি রিপাবলিকান রোনাল্ড রিগান থেকে ডেমোক্র্যাট জো বাইডেন পর্যন্ত সাতজন মার্কিন প্রেসিডেন্টের অধীনে কাজ করেছেন। তিনি আমেরিকার সবচেয়ে বিখ্যাত ডাক্তারদের একজন।

এর আগে বহু সংক্রামক রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রকে নেতৃত্ব দিলেও, কোভিড-১৯ মহামারির সময়ে মার্কিন সরকারের এই শীর্ষ সংক্রামক-রোগ বিশেষজ্ঞের নাম বিশ্বব্যাপী প্রায় প্রতিটি ঘরে পৌঁছে গেছে।

অনেকেই মনে করেন, ড. ফাউসির সব পরামর্শ যদি সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প গ্রহণ করতেন, তাহলে কোভিড মহামারিতে আমেরিকার অবস্থা এতটা খারাপ হতো না।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com