১লা মার্চ, ২০২১ ইং , ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১৬ই রজব, ১৪৪২ হিজরী

৯ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি : স্বাস্থ্য সচিব

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : স্বাস্থ্য সচিব আব্দুল মান্নান জানিয়েছেন, দেশের অন্তত ৮ থেকে ৯ কোটি মানুষকে যেন টিকা দেওয়া যায়, সেই প্রস্তুতি নিচ্ছে সরকার। এতে দেশে হার্ড ইমিউনিটি তৈরি হবে।

বুধবার (২০ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে ভ্যাকসিন বিষয়ক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, ভারতের উপহার হিসেবে বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) ২০ লাখ ভ্যাকসিন দেশে আসছে। পরবর্তী সময়ে আসবে বাংলাদেশের কেনা ৫০ লাখ ভ্যাকসিন। প্রথম ধাপে এক কোটি ৬০ লাখ মানুষ ভ্যাকসিন কার্যক্রমের আওতায় আসবে। এভাবে ভারত থেকে আরও তিন কোটি ভ্যাকসিন পর্যায়ক্রমে আসবে। কোভ্যাক্স থেকে আসবে ছয় কোটি ৮০ লাখ ডোজ।

দেশের জনসংখ্যার ভিত্তিতে ভ্যাকসিনের এই সংখ্যা ঠিক আছে নাকি পরবর্তীতে আরও ভ্যাকসিন আনা হবে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য সচিব আব্দুল মান্নান বলেন, ‘বাড়তি জনগোষ্ঠীর জন্য ভ্যাকসিন আনার প্রস্তুতি সরকারের রয়েছে। কোভ্যাক্স থেকে মোট জনসংখ্যার ২০ শতাংশ হিসাবে ছয় কোটি ৮০ লাখ ভ্যাকসিন আসবে। ছয় কোটি ৮০ লাখ ডোজ দেওয়া হবে তিন কোটি ৪০ লাখ মানুষকে। আর ভারত থেকে কিনে আনা তিন কোটি ডোজ দেওয়া হবে এক কোটি ৫০ লাখ মানুষকে। তাতে চার কোটি ৯০ লাখ মানুষ এই দুই সোর্স থেকে আসা ভ্যাকসিন পাচ্ছে। সঙ্গে রয়েছে উপহারের ২০ লাখ। এই হিসাবে মোট জনসংখ্যা হয় ৫ কোটি ১০ লাখ। কিন্তু আমাদের প্রস্তুতি হচ্ছে—যেন নিদেনপক্ষে দেশের ৮ থেকে ৯ কোটি মানুষকে টিকা দেওয়া যায়, সে চেষ্টা করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলছে, যদি দেশের মোট জনসংখ্যার ৮০ শতাংশ মানুষকে টিকা দেওয়া যায়, তাহলে সে দেশে হার্ড ইমিউনিটি তৈরি হবে। আমাদের মাইক্রোপ্ল্যানে এই ৮০ শতাংশ মানুষকেই টিকা দেওয়ার প্রস্তুতি রয়েছে।’

‘মোট ৫ কোটি ১০ লাখ মানুষকে টিকা দেওয়ার পরেও যদি প্রয়োজন হয়, তাহলে আরও টিকা আমদানি করা হবে।’ একইসঙ্গে আমি অত্যন্ত আশাবাদী, আগামী জুন-জুলাইয়ের মধ্যে আমাদের দেশেই ভ্যাকসিন তৈরি হবে এবং এটা অ্যাভেইলেবেল হয়ে যাবে বলেও মন্তব্য করেন আব্দুল মান্নান।

/এএ

নিউজটি শেয়ার করুন

সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com