২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ ইং , ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ , ১২ই রজব, ১৪৪২ হিজরী

ক্যারিবীয় কোচের চোখে বাংলাদেশের দুর্বলতা 

ক্যারিবীয় কোচের চোখে বাংলাদেশের দুর্বলতা 

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ঘরের মাঠে বাংলাদেশই ফেবারিট, মেনে নিতে আপত্তি নেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের হেড কোচ ফিল সিমন্সের। কিন্তু কোচ হিসেবে তার পরিকল্পনায় আছে প্রতিপক্ষের দুর্বলতাও।

এক বছর পর টেস্ট খেলতে নামছে বাংলাদেশ। টাইগাদের দুর্বলতার জায়গা কি হবে? ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে আসা ক্যারিবীয় হেড কোচ ফিল সিমন্সের কাছে সোমবার ছুটে গিয়েছিল এমন প্রশ্ন।

জবাবে সিমন্স বলেন, ‘আমার মনে হয় টেস্টে শুরুর দিকে তাদের কিছুটা ভঙ্গুর দেখাতে পারে। তারা প্রায় এক বছর টেস্ট ক্রিকেট খেলছে না। সেখান থেকে ফিরে শুরুতে কিছুটা ভঙ্গুর হতে পারে। তবে আমি নিশ্চিত তারা সেটা দ্রুতই কাটিয়ে উঠবে।’
সাকিব-তামিমের মতো অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররাই দলকে বিপদ থেকে বাঁচিয়ে দেবেন, মনে করছেন সিমন্স। তার ভাষায়, ‘তাদের দলে তামিম-সাকিবের মতো বেশ অভিজ্ঞ কয়েকজন আছে। তাদের ভঙ্গুরতা সম্ভবত খুব দীর্ঘায়িত হবে না। যদি সেটা হয়, তবে তো সুযোগ কাজে লাগাতে হবে।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট খেলে এসেছে। বাংলাদেশ এক বছর বাইরে। এদিক থেকে ক্যারিবীয়রা এগিয়ে থাকবে কি? সিমন্স অবশ্য এতে বড় কোনো পার্থক্য দেখছেন না।

ক্যারিবীয় কোচের কথা, ‘আমার মনে হয়, যে দলের বিপক্ষেই খেলুক না কেন বাংলাদেশ তাদের ঘরের মাঠে এগিয়ে। তারা হয়তো এক বছর টেস্ট খেলেনি। কিন্তু যখন ঘরের মাঠে খেলছে, অবশ্যই খুব শক্তিশালী।’

সিমন্স যোগ করেন, ‘আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ঘাটতি থাকতে পারে। কিন্তু ভালোভাবে অনুশীলনের তো সুযোগ আছে। অনুশীলন করে জড়তা কাটানো যায়, এটা মানসিক ব্যাপার। প্রথম দিনের প্রথম ঘন্টা পেরোনোর পরই সব জড়তা চলে যাবে।’

প্রস্তুতি ম্যাচে দারুণ বোলিং করেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের দীর্ঘদেহী স্পিনার রাহকিম কর্নওয়াল। ৬ ফুট ৬ ইঞ্চি উচ্চতার ১৪০ কেজি ওজনের এই অফস্পিনার মূল ম্যাচেও ভালো কিছু করতে পারবেন, আশাবাদী সিমন্স।

কর্নওয়ালকে নিয়ে সিমন্স বলেন, ‘রাহকিম যে কোনো পিচেই বাউন্স পাবে। সে লম্বা, তাই বাউন্স পাবেই। এটা আমাদের জন্য খুব ইতিবাচক একটা দিক।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি
Design & Developed BY ThemesBazar.Com