বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে হজ প্যাকেজ মূল্য বেড়েছে : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে হজ প্যাকেজ মূল্য বেড়েছে : ধর্ম প্রতিমন্ত্রী

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেছেন, ‘বৈশ্বিক পরিস্থিতিতে হজ প্যাকেজ মূল্য বেড়েছে। রিয়ালের বিনিময় মূল্যে বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। রবিবার (২ এপ্রিল) বিকালে সেগুনবাগিচায় রিলিজিয়াস রিপোর্টার্স ফোরাম আয়োজিত সেমিনারে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) সভাপতি এম. শাহাদাত হোসাইন তসলিম বিমান ভাড়া নির্ধারণে এভিয়েশন বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে গঠিত একটি স্বতন্ত্র টেকনিক্যাল কমিটি গঠনের প্রস্তাবও করেন।

হাব সভাপতি বলেন, ‘২০২২ সালে হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া ১ লাখ ৪০ হাজার টাকা নির্ধারণ করা হয়েছিল মূলত: করোনা মহামারি, ইউক্রেন যুদ্ধে জেট ফুয়েলের মূল্য বৃদ্ধি এবং তখন করোনায় বিমানের কিছু আসন খালি রেখে ফ্লাইট পরিচালনার কারণে। সে প্রেক্ষিতে বাংলাদেশি হজযাত্রীদের প্রত্যাশা ছিল, করোনা পরবর্তী বিমান ভাড়া কমতে পারে। বর্তমানে জেট ফুয়েলের মূল্য বৃদ্ধি পায়নি, সৌদি আরব কোনও নতুন চার্জ আরোপ করেনি, এবার বিমানের আসন খালি রেখে হজযাত্রী পরিবহন করতে হবে না। অথচ হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া ৫৭ হাজার ৭৯৭ টাকা বৃদ্ধি করা হয়েছে।’

হাব সভাপতির বিশেষ কমিটি গঠনের তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় প্রতিমন্ত্রী ফরিদুল হক খান বলেন, ‘নির্ধারিত ফ্লাইট বিবেচনায় বিমান ভাড়া বৃদ্ধির যৌক্তিক কারণ আছে। তবে বিতর্ক এড়িয়ে বিমান ভাড়া নির্ধারণে কোনও স্থায়ী কাঠামোর কথা ভেবে দেখা যায়।’

হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) মহাসচিব ফারুক আহমেদ সরদার বলেন, ‘বিগত বছরগুলোতে বাংলাদেশের হজ ব্যবস্থাপনা সৌদি সরকারের কাছেও প্রশংসিত হয়েছে। এবারও সুষ্ঠুভাবে হজ কার্যক্রম পরিচালিত হবে।’

রিলিজিয়াস রিপোর্টার্স ফোরামের সাধারণ সম্পাদক কামরুজ্জামান বাবলু’র সঞ্চালনায় সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন ফোরামের সভাপতি উবায়দুল্লাহ বাদল। সেমিনার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন আরআরএফ এর সহ-সভাপতি রাশিদুল হাসান। প্রবন্ধে উল্লেখ করা হয়, অস্বাভাবিক মূল্য বৃদ্ধির কারণে হজ নিবন্ধন প্রক্রিয়া চরমভাবে গতিহীন হয়ে পড়ে। এ নিয়ে দেশের সর্বোচ্চ আদালতও প্যাকেজ মূল্য নিয়ে রুল জারি করেন।

এবারের হজ প্যাকেজের বিমান ভাড়া, মক্কা মদীনায় বাড়ি ভাড়া, সার্ভিস চার্জ ও অন্যান্য খাতে প্রায় লাখ খানেক টাকা কমানো যেত বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। তাই বর্তমান হজ প্যাকেজ শুধু প্রশ্নবিদ্ধই নয়, সরকারের সদিচ্ছার বিষয়টি নিয়েও বিভিন্ন মহলে প্রশ্ন উঠেছে। এভিয়েশন বিশেষজ্ঞদের মতে, বিমান তাদের লোকসান পুষিয়ে নিতে এবং প্রতিষ্ঠানকে লাভজনক হিসেবে দেখাতে প্রতি বছর হাজিদের বিমান ভাড়া বাড়ায়।

সেমিনারে আরও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের মহাসচিব কাজী আবুল খায়ের, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের নায়েবে আমির মাওলানা মুজিবুর রহমান হামিদী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের যুগ্ম-মহাসচিব মাওলানা তোফাজ্জল হোসেন মিয়াজী, খেলাফত মজলিসের যুগ্ম-মহাসচিব অধ্যাপক আব্দুল জলিল, ইসলামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম পরিষদের সভাপতি শহিদুল ইসলাম কবির, জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের নেতা মুফতি ইমরানুল বারী সিরাজী প্রমুখ।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *