৬ই আগস্ট, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ২২শে শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ২৬শে জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

মনোনয়নপত্র বাতিল জাপা মেয়র প্রার্থী শাফিনের

মনোনয়নপত্র বাতিল জাপা মেয়র প্রার্থী শাফিনের

পাথেয় রিপোর্ট : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে ব্যান্ডশিল্পী শাফিন আহমেদের মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে মেয়র পদে উপনির্বাচনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী হয়েছিলেন।

শনিবার রিটার্নিং কর্মকর্তা আবুল কাশেমের যাচাইয়ে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ব্যবসায়ী আতিকুল ইসলামসহ বাকি পাঁচজনের মনোনয়নপত্র বৈধতা ঘোষণা করলেও বাতিল হয়েছে ব্যান্ডশিল্পী শাফিন আহমেদের মনোনয়নপত্র।

আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠেয় এই নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হতে ছয়জন মনোনয়নপত্র দাখিল করেছিলেন।

খেলাপি ঋণের কারণে শাফিনের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে বলে জানিয়েছেন সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম।

সঙ্গীত শিল্পী ফিরোজা বেগম ও সুরকার কমল দাশগুপ্তের ছেলে শাফিন এর আগে কোনো রাজনৈতিক দলে নাম লেখাননি। জনপ্রিয় ব্যান্ডদল মাইলসের এই লিড ভোকাল আকস্মিকভাবেই গত বছর মেয়র পদে নির্বাচনের ঘোষণা দিয়ে রাজনীতিতে পা রাখেন।

মেয়র আনিসুল হকের মৃত্যুর পর গত বছর উপনির্বাচনের তফসিল হলে শাফিন এনডিএম নামে একটি রাজনৈতিক দলের প্রার্থী হওয়ার ঘোষণা দিয়ে আলোচনায় এসেছিলেন।

কিন্তু দলটি তখন ইসির নিবন্ধন পায়নি এবং আদালতের আদেশে নির্বাচনও আটকে যায়।

আদালতের বাধা কাটিয়ে এবার পুনঃতফসিল হলে লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন শাফিন।

শাফিনের মনোনয়নপত্র বাতিল হলেও ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থী আতিকুল ইসলাম,  পিডিপির শাহীন খান, এনডিএমের ববি হাজ্জাজ, এনপিপির আনিসুর রহমান দেওয়ান ও স্বতন্ত্র মোহাম্মদ আব্দুর রহিমের মনোনয়নপত্র বৈধ বলে রায় দিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তিন দিনের মধ্যে বিভাগীয় কমিশনারের কাছে আপিলের সুযোগ রয়েছে।

প্রার্থিতা বাতিলের প্রতিক্রিয়ায় শাফিন সাংবাদিকদের বলেন, এটা ইসির অযৌক্তিক সিদ্ধান্ত। আমার সিআইবি রিপোর্ট ক্লিয়ার। আমি কোথাও খেলাপি নই। তারপরও কীভাবে আমাকে বাদ দেওয়া হল? আমি অবশ্যই এর বিরুদ্ধে আপিল করব।

একাদশ সংসদ নির্বাচনে ভোট ডাকাতির অভিযোগ তোলার পর বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচন বর্জন করেছে। নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না বাম গণতান্ত্রিক জোটও।

তার মধ্যেই সবমিলিয়ে ২৫ জন এই নির্বাচনে অংশ নিতে মনোনয়নপত্র নিয়েছিলেন, তবে জমা দিয়েছেন তার এক-চতুর্থাংশ। এখন টিকে থাকলেন পাঁচজন।

ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে উপনির্বাচনের সঙ্গে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণের নতুন ৩৬টি ওয়ার্ডেও ভোট হবে ২৮ ফেব্রুয়ারি। ঢাকা উত্তরে ৯ ও ২১ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদেও উপনির্বাচন হবে একই দিন।

ঢাকা উত্তরে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৬৭ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ৪৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন।

সেখানে সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১৫৮ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ২৫ জন মনোনয়নপত্র জমা দেন।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com