২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২০শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

হঠাৎই বাংলাদেশে রুশ চ্যানেল আরটি’র সম্প্রচার বন্ধ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : বাংলাদেশে আচমকাই রাশিয়ার সরকার নিয়ন্ত্রিত আন্তর্জাতিক টেলিভিশন নেটওয়ার্ক রাশিয়া টুডের (আরটি) সব সম্প্রচার বন্ধ হয়ে গিয়েছে। এমনকি, দেশের সব ধরনের সম্প্রচার মাধ্যমেও এ চ্যানেলটি আর দেখা যাচ্ছে না।

টেলিভিশন দর্শকরা অভিযোগ করেছেন, গত চারদিন ধরে তারা রাশিয়া টুডে চ্যানেলটি দেখতে পাচ্ছেন না।

ঢাকার রামপুরার বাসিন্দা মাসুম মোল্লা জানান, তিনি এবং তার পরিবার রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে আরটি চ্যানেলে চোখ রাখছিলেন। তবে হঠাৎ করে গত ৫ মার্চ রাত থেকে চ্যানেলটির সম্প্রচার বন্ধ হয়ে যায়। ক্যাবল অপারেটরদের কাছে এর কারণ জানতে চাইলেও তারা কোনো উত্তর দিতে পারেনি।

খিলগাঁওয়ের বাসিন্দা ব্যবসায়ী মাহবুবুর রহমান জানান, তার ছেলে পিপলস ফ্রেন্ডশিপ ইউনিভার্সিটি অব রাশিয়ায় (আরইউডিএন) পড়াশোনা করে। গত তিন বছর ধরে তিনি রাতে ঘুমানোর আগে নিয়মিত আরটি চ্যানেলে চোখ রাখতেন। এরপর হঠাৎ করেই কোনো ধরনের ঘোষণা ছাড়াই চ্যানেলটির সম্প্রচার বন্ধ হয়ে যায়।

এছাড়া, ধানমন্ডি, বাসাবো, মিরপুর, গুলশান ও মগবাজারের টিভি দর্শক ও ক্যাবল অপারেটররাও একই কথা জানান।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (টিভি) মজিবুর রহমান ঢাকা ট্রিবিউনকে জানান, সরকার কর্তৃক অনুমোদিত টিভি চ্যানেলের তালিকায় আর কোনো রাশিয়ান চ্যানেল নেই।

তিনি দাবি করেন, চ্যানেলটি (আরটি) কেন তালিকা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে, সেটি তারও অজানা।

একই মন্ত্রণালয়ের উপসচিব (টিভি-২) এসকে শামসুর রহমানও একই মন্তব্য করেন।

ক্যাবল অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (সিওএবি) সভাপতি এসএম আনোয়ার পারভেজ জানান, তারা আরটি চ্যানেল নিষিদ্ধের ব্যাপারে সরকারের কাছ থেকে কোনো আনুষ্ঠানিক চিঠি পাননি।

তিনি বলেন, “আমরা আমাদের ক্যাবল অপারেটরদের সঙ্গে যোগাযোগ করলেও তারা আমাদের জানায় অজানা কারণে আরটি চ্যানেল ব্লক করা হয়েছে। চ্যানেলটি সম্প্রচারকারী স্যাটেলাইট প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিষিদ্ধ করা হতে পারে বা বিভিন্ন কারণে চ্যানেলটি না-ও প্রচার করা হতে পারে।”

সিওএবি সভাপতি আরও বলেন, “স্যাটেলাইট প্রতিষ্ঠানের কারণে মাঝেমাঝে দুই-একটি চ্যানেল বন্ধ হয়ে যায়। আমাদের সরকার বা ক্যাবল অপারেটর কেউই বিদেশি চ্যানেল সম্প্রচার বন্ধ করেনি। সম্প্রচার সংস্থাগুলো সেগুলো বন্ধ করে দিয়েছে।”

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে অনুযায়ী, মঙ্গলবার (৮ মার্চ) রাতে ইউক্রেনের যুদ্ধের কভারেজের জন্য মিডিয়া নিয়ন্ত্রক অফকমের তদন্তের কারণে আরটি চ্যানেলের সম্প্রচার বন্ধ করার জন্য নিষেধাজ্ঞার বিষয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে অনুমোদন দেয় ইউরোপীয় ইউনিয়ন।

এদিকে, ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ান জানায়, যুক্তরাজ্যসহ পুরো ইউরোপ জুড়ে আরটি চ্যানেলের স্ট্রিমিং বন্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউটিউব।

যুক্তরাজ্যের গণমাধ্যম সংস্থা অফকম বর্তমানে আরটির বিষয়ে সম্প্রচার বিষয়ক সম্ভাব্য ২৭টি নিয়ম লঙ্ঘনের ব্যাপারে তদন্ত করছে। বিবিসির ভাষ্যমতে, অফকমের হাতে আরটির সম্প্রচারের লাইসেন্স কেড়ে নেওয়ার ক্ষমতা থাকলেও যেকোনো পদক্ষেপ নিতে কয়েক সপ্তাহ সময় লাগতে পারে।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com