৩, ৪, ৫ ফেব্রুয়ারি তাড়াইলে আল্লামা মাসঊদের ইসলাহী ইজতেমা

৩, ৪, ৫ ফেব্রুয়ারি তাড়াইলে আল্লামা মাসঊদের ইসলাহী ইজতেমা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : নেক ও এক হওয়ার স্লোগান নিয়ে—মানুষের হৃদয়কে ঈমানের স্বাদে তৃপ্তিময় করা ও নৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে প্রতি বছরের মতো এবারও অনুষ্ঠিত হচ্ছে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা ও বেফাকুল মাদারিসিদ্দীনিয়া বাংলাদেশ এর চেয়ারম্যান, শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম, মাওলানা সাইয়্যিদ আসআদ মাদানী (রহ.) এর খলীফা, শাইখুল ইসলাম আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ এর আহ্বানে আয়োজিত কিশোরগঞ্জের তাড়াইলের বেলঙ্কার ইসলাহী ইজতেমা।

শনিবার (২৮ জানুয়ারি) ইসলাহী ইজতেমা আয়োজক কমিটির সদস্য ও বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা ঢাকা মহানগরীর নির্বাহী সভাপতি মাওলানা সদরুদ্দিন মাকনুন পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকমকে জানান, কিশোরগঞ্জের তাড়াইলের বেলঙ্কার জামিয়াতুল ইসলাহ ময়দানে ৩, ৪, ৫ ফেব্রুয়ারি এই ইসলাহী ইজতেমা অনুষ্ঠিত হবে। ইজতেমার বিভিন্ন পর্বে ইসলাহী বয়ান, আম বয়ান, বিশেষ বয়ান, কোরআন তালিম ও তেলাওয়াত, জিকির ও দুরুদের আমলসহ ধারাবাহিক আত্মোন্নয়নমূলক বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবেন আগত মুসল্লিরা।

মাওলানা মাকনুন আরও বলেন, তাযকিয়ায়ে নফসের অনুশীলনের মাধ্যমে মানুষকে আল্লাহর পথে আসার আহবান ও মানুষের মনে আল্লাহ তায়ালার ভালোবাসার উন্মেষ ঘটানোর উপায় এবং নৈতিক উন্নয়নের দাওয়াত নিয়ে ৩ ফেব্রুয়ারি থেকেই বেলঙ্কায় অবস্থান করবেন আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ (দা.বা.)। ৫ ফেব্রুয়ারি ইজতেমার আখেরি মোনাজাতও পরিচালনা করবেন তিনি।

প্রসঙ্গত, প্রতিবছরই শীতের সৃজনে কিশোরগঞ্জের তাড়াইলের বেলঙ্কা জামিয়াতুল ইসলাহ ময়দানে মানুষের আধ্যাত্মিক পরিবর্তনের প্রত্যাশায় ভাটির মানুষের দ্বীনী উন্নয়নে এই ইসলাহী ইজতেমা অনুষ্ঠিত হয়। ইতোমধ্যেই ব্যাপক সাড়া পড়েছে এই ইজতেমার। এখানে বিশেষ ব্যবস্থায় নারীদের জন্যও আলাদা আলোচনা শোনার সুযোগ আছে। এ ছাড়া শিক্ষার্থী, শিক্ষক, যুবক-তরুণদের জন্যও আলাদা আলাদা বিশেষ আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *