২৪শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ৯ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৩ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

চলতি দশকে যে সব উপাসনালয়ে রক্ত ঝরেছে

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : পৃথিবীর তাবৎ ধর্মই শান্তির কথা বলে। আর ধর্মীয় উপাসনালয়গুলোকে দুনিয়ার সবচেয়ে শান্তির জায়গা হিসেবেই মনে করা হয়। সেখানেই মানুষ নিজেকে একেবারে নিরাপদ ভেবে আসছে। অথচ এই উপাসনালয়গুলোতেই নৃশংস হামলা চালিয়ে রক্তের নদী বইয়ে দিচ্ছে উগ্রবাদী গোষ্ঠী। সবশেষ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দু’টি মসজিদে ভিডিও গেমসের স্টাইলে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে ৪৯ জন মুসল্লিকে হত্যা করে এক শ্বেতাঙ্গ উগ্রবাদী।

চলতি দশকে অর্থাৎ ২০১০ সাল থেকে এ পর্যন্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বহু ধর্মীয় উপাসনালয়ে রক্ত ঝরেছে। ঝরেছে বহু প্রাণ। নিউজিল্যান্ডের বর্বরোচিত ঘটনাটির পর সব ধরনের উগ্রবাদ-চরমপন্থার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ফের দৃঢ়প্রত্যয় আসছে বিশ্বনেতাদের কাছ থেকে। লতি দশকে যেসব বর্বরোচিত নৃশংস হামলা হয়েছে, তার একটি সংক্ষিপ্ত চিত্র তুলে ধরা হলো—

জুলাই ১৬, ২০১০ : ইরানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলে শিয়া মুসলিম গোষ্ঠীর একটি মসজিদে দু’টি পৃথক আত্মঘাতী বোমা হামলা চালানো হয়। এতে ২৭ জন নিহত এবং ২৭০ জন আহত হন। ওই হামলার দায় স্বীকার করে সুন্নিপন্থি গোষ্ঠী জুনদাল্লাহ।

অক্টোবর ৩১, ২০১০ : ইরাকের বাগদাদ শহরে ‘আওয়ার লেডি অব সেলভ্যাশন ক্যাথলিক চার্চে’ জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়েদার বর্বরোচিত হামলায় ৫৮ জন নিহত হন। সেসময় চার্চটিতে রোববারের প্রার্থনার জন্য লোকজন একত্রিত হন। ২০০৩ সালে ইরাকে যুক্তরাষ্ট্রের আগ্রাসনের পর এটিই খ্রিস্টান ধর্মের অনুসারীদের লক্ষ্য করে সবচেয়ে জঘন্যতম হামলা। পরবর্তীতে ইরাকের আল-কায়েদা জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের সঙ্গে একীভূত হয়ে যায়।

ডিসেম্বর ১৫, ২০১০ : ইরানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের একটি মসজিদে সুন্নিপন্থি জুনদাল্লাহর দু’জন আত্মঘাতী হামলাকারী বোমা বিস্ফোরণ ঘটালে দেশটির বিশেষায়িত বাহিনী রেভোলুশনারি গার্ডের ৬ কমান্ডার নিহত হন।

আগস্ট ৫, ২০১২ : যুক্তরাষ্ট্রের উইসকনসিন অঙ্গরাজ্যের ওয়াক ক্রিক শহরের শিখ মন্দিরে ওয়েড মাইকেল পেজ নামে এক শ্বেতাঙ্গ উগ্রবাদীর গুলিতে ৬ জন নিহত হন। নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে আহত হয়ে পরে আত্মঘাতী হন পেজ।

নভেম্বর ১৮, ২০১৪ : ইসরায়েলি দখলদারিত্বের অভিযোগ তুলে জেরুজালেমে ইহুদিদের উপাসনালয় সিনাগগে ঢুকে চারজন উপাসক ও একজন পুলিশকে হত্যা করে দুই ফিলিস্তিনি।।

জানুয়ারি ৩০, ২০১৫ : পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশের শিকারপুর শহরে শিয়া মুসলিমদের একটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৭১ জন নিহত হন। সুন্নিপন্থি গোষ্ঠী জুনদুল্লাহ এ হামলার দায় স্বীকার করে।

মার্চ ২০, ২০১৫ : ইয়েমেনের রাজধানী সানায় অবস্থিত দু’টি মসজিদে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের আত্মঘাতী বোমা হামলায় ১৩৭ জন নিহত হন।

জুন ১৭, ২০১৫ : যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ক্যারোলাইনা অঙ্গরাজ্যের চার্লেস্টনে ডিলান রোফ (২১) নামে শ্বেতাঙ্গ উগ্রবাদী এক যাজকসহ নয় কৃষ্ণাঙ্গ উপাসককে হত্যা করে। পরে আদালতে দোষী সাব্যস্ত হলে তার মৃত্যুদণ্ড হয় এবং তা কার্যকর হয়।

সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৫ : ইয়েমেনের সানায় শিয়াপন্থি হুথি বিদ্রোহী অধ্যুষিত একটি মসজিদে ইদুল আজহার নামাজ চলাকালে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ২৫ জন নিহত হন।

নভেম্বর ১২, ২০১৬ : পাকিস্তানের বেলুচিস্তান প্রদেশে শাহ নুরানি মাজারে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৫০ জন নিহত হন।

ডিসেম্বর ১১, ২০১৬ : মিশরের রাজধানী কায়রোর খ্রিস্টানদের উপাসনালয়ে আত্মঘাতী হামলায় ২৫ জন নিহত হন। ইসলামিক স্টেট ওই হামলার দায় স্বীকার করে নেয়।

জানুয়ারি ২৯, ২০১৭ : কানাডার কুইবেক শহরের ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্রে সন্ধ্যায় প্রার্থনারত অবস্থায় আলেকজান্ডার বিসোনেট নামে এক ব্যক্তি গুলি চালিয়ে ৬ জনকে হত্যা করেছিল। পরে তাকে ৪০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০১৭ : পাকিস্তানের সিন্ধ প্রদেশের লাল শাহবাজ কালান্দার মাজারে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৯৮ জন নিহত হন।

এপ্রিল ৯, ২০১৭ : মিশরের আলেকজান্দ্রিয়া এবং টানটা শহরের দু’টি চার্চে পৃথক দু’টি আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৪৫ জন নিহত হন। হামলা দু’টির দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট।

জুন ১৫, ২০১৭ : আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে শিয়া মুসলিম গোষ্ঠীর একটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৪ জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে শিয়াদের হাজারাস সম্প্রদায়ের এক নেতাও ছিলেন।

আগস্ট ১, ২০১৭ : আফগানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলীয় হেরাত প্রদেশে শিয়াদের একটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৯০ জন নিহত হন। আহত হন কয়েকশ মুসল্লি। মাগরিবের নামাজের সময় ওই হামলা চালানো হয়।

আগস্ট ২৫, ২০১৭ : আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে শুক্রবারের জুমার নামাজ চলাকালে সশস্ত্র গোষ্ঠী হামলা চালালে ২৮ জন নিহত এবং ৫০ জন আহত হন। হতাহতদের মধ্যে বেশিরভাগই ছিল শিশু। পরে হামলাকারীদের মধ্যে চারজনও নিহত হয়।

সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৭ : কাবুলে শিয়া মুসলিমদের একটি মসজিদের বাইরে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৬ জন নিহত হন। জুমার নামাজ শেষে মুসল্লিরা বের হলে এ হামলা চালানো হয়।

অক্টোবর ২০, ২০১৭ : কাবুলে শিয়া মুসলিম গোষ্ঠীর আরেকটি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৩১ জন নিহত এবং ২৯ জন আহত হন।

নভেম্বর ৫, ২০১৭ : যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাস অঙ্গরাজ্যে সাথারল্যান্ড স্প্রিং জনপদে ফার্স্ট ব্যাপিস্ট চার্চে ডেভিন ক্যালি (২৬) নামে কালো পোশাক পরিহিত অস্ত্রধারী যুবকের গুলিতে ২৬ জন নিহত এবং ২০ জন আহত হন।

নভেম্বর ২৪, ২০১৭ : মিশরের দক্ষিণ সিনাইয়ে একটি মসজিদে জঙ্গি হামলায় ৩১১ জন নিহত হন। হামলাটিকে আধুনিক মিশরের ইতিহাসের সবচেয়ে বর্বরোচিত হামলা বলে মনে করা হয়।

ডিসেম্বর ১৭, ২০১৭ : পাকিস্তনের একটি চার্চে জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের হামলায় ১৬ জন প্রাণ হারান।

আগস্ট ৩, ২০১৮ : আফানিস্তানের পশ্চিমাঞ্চলে শিয়াদের একটি মসজিদে আত্মঘাতী হামলায় ২৭ জন নিহত হন। হামলাকারী বোরখা পরে ছদ্মবেশে প্রবেশ করে এ হামলা চালিয়েছিল বলে জানা যায়।

অক্টোবর ২৭, ২০১৮ : যুক্তরাষ্ট্রের পেন্সিলভানিয়া অঙ্গরাজ্যের পিটসবার্গে এক বন্দুকধারী ইহুদিদের উপাসনালয়ে ঢুকে গুলি চালালে ১১ জন নিহত এবং ৪ পুলিশ সদস্যসহ ৬ জন আহত হন।

জানুয়ারি ২৭, ২০১৯ : ফিলিপাইনের দক্ষিণাঞ্চলে মুসলিম অধ্যুষিত দ্বীপ জোলোতে খ্রিস্টানদের একটি অনুষ্ঠানে দু’জন আত্মঘাতীর বোমা বিস্ফোরণে ২৩ জন নিহত এবং প্রায় ১০০ জন আহত হন। এ ঘটনার তিনদিন পরই এক হামলাকারী জাম্বোয়াঙ্গা শহরের একটি মসজিদে গ্রেনেড নিক্ষেপ করে। এতে দুই ধর্মীয় শিক্ষক নিহত হন।

মার্চ ১৫, ২০১৯ : সবশেষ নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে নামাজরত ৪৯ মুসল্লিকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় আহত হন ৪৯ জন। ব্রেন্টন ট্যারেন্ট (২৮) নামে এক শ্বেতাঙ্গ উগ্রবাদী ইতিহাসের অন্যতম নৃশংস এই হামলা চালায়।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com