১৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৫ই জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি

প্রাণভিক্ষা চাইবেন মৃত্যু দণ্ডপ্রাপ্ত  রিপন

 

সিলেট প্রতিনিধি ● সিলেটে সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা মামলায় মৃত্যু দণ্ডপ্রাপ্ত তিন আসামির অন্যতম সিলেট কারাগারে বন্দি জঙ্গি দেলোয়ার হোসেন রিপন রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চেয়ে আবেদন করবেন। বুধবার রাতে রিপন তার পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলে এ সিদ্ধান্ত নেন বলে জানান কারাগারে সিনিয়র জেল সুপার ছগির মিয়া। তিনি আরও জানান, বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টার পর তিনি এ সিদ্ধান্তের কথা কারা কর্তৃপক্ষকে জানান। প্রাণভিক্ষার লিখিত আবেদন পাওয়ার পর তা রাষ্ট্রপতির নিকট পাঠানো হবে। তবে রিপনের সঙ্গে তার পরিবারের সদস্যরা বৃহস্পতিবার দেখা করবেন কিনা এ বিষয়টি এখন নিশ্চিত নয়।

সিলেটে সাবেক ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা মামলায় মৃত্যুদণ্ডাদেশপ্রাপ্ত হরকাতুল জিহাদের (হুজি) নেতা মুফতি আবদুল হান্নান, তার সহযোগী শরীফ শাহেদুল বিপুল ও দেলোয়ার হোসেন রিপনের মৃত্যু পরোয়ানা বুধবার রাতে সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছে দেয়া হয়। মৃত্যুদ-প্রাপ্ত এই তিন আসামির মধ্যে দেলোয়ার হোসেন রিপনের মৃত্যু পরোয়ানা রেখে মুফতি আবদুল হান্নান ও শরীফ শাহেদুল বিপুলের মৃত্যু পরোয়ানা গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে পাঠানো হয়। উল্লেখ্য, ২০০৪ সালের ২১ মে সিলেটে তৎকালীন ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরীর ওপর গ্রেনেড হামলা হলে তিন জন নিহত হন। আহত হন অন্তত ৭০ জন।

এ ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ২০০৮ সালের ২৩ ডিসেম্বর সিলেটের বিচারিক আদালত হুজি প্রধান মুফতি হান্নান, শরীফ শাহেদুল আলম ওরফে বিপুল ও দেলোয়ার হোসেন ওরফে রিপনকে মৃত্যুদণ্ড এবং হান্নানের ভাই মহিবুল্লাহ ওরফে মফিজুর রহমান ওরফে মফিজ ওরফে অভি এবং মুফতি মঈন উদ্দিন ওরফে আবু জান্দালকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। আসামিপক্ষ এর বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আপিল করেন। আপিলের শুনানি শেষে গত বছরের ৭ ডিসেম্বর আসামিদের আপিল খারিজ হয়ে যায়। গত ১৭ জানুয়ারি এ রায় প্রকাশের পর আসামিরা পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করেন। ১৯ মার্চ এ রায়ও খারিজ করে দেন আদালত।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com