২৪শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১০ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ২২শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি

উইঘুর মুসলিমদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট হতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : জিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলমানদের উপর চীন সরকারের নির্যাতনের নিন্দা জানিয়েছে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা। নিন্দা জানানোর পাশাপাশি উইঘুর মুসলিমদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সচেষ্ট হতে জাতিসংঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সংগঠনটি।

শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়ে এ নিন্দা ও আহ্বান জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, ‘বিশ্বের সব সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের অধিকার প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে অংশগ্রহণ করা প্রত্যেকটি মানুষের নৈতিক ও মানবিক দায়িত্ব। নিজ দেশে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বজায় রাখা প্রত্যেকটি দেশের অন্যতম প্রধান দায়িত্ব। কিন্তু সম্প্রতি চীন সরকারের সাম্প্রদায়িক কর্মকাণ্ডে আমরা মারাত্নকভাবে উদ্বিগ্ন। চীন সরকারের বর্বরতা সবধরনের সীমা ছাড়িয়ে গেছে। হিটলারের নাৎসি বাহিনীর আদলে কনসেনট্রেশন ক্যাম্প স্থাপন করে নির্যাতন চালানো হচ্ছে মুসলিমদের উপর। মুসলিমদের বন্দি করা এখনও থামেনি। প্রায় ১ কোটি মুসলিম অধ্যুষিত এ অঞ্চলের প্রায় ১০ লাখ উইঘুর নারী-পুরুষ বন্দি রয়েছে সুরক্ষিত এই কনসেনট্রেশন ক্যাম্পগুলোতে।

উইঘুরদের ধর্মীয় স্বাধীনতাও কেড়ে নিয়েছে চীন সরকার। উইঘুর মুসলিমদের ইসলামি সাংস্কৃতি ও মূল্যবোধকে ধ্বংস করতে চীন সরকার নতুন নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করছে। নতুন মসজিদ নির্মাণের অনুমোদন না দেয়া, পুরনো মসজিদগুলো বন্ধ করে দেয়া, পবিত্র হজ্জকে পুরোপুরি নিরুৎসাহিত করা, মুসলিমদের সংখ্যা কমানোর জন্য মুসলিম নারীদের জোরপূর্বক গর্ভপাত করানো, জোরপূর্বক জন্মনিয়ন্ত্রণ ওষুধ খাওয়ানো, পবিত্র কুরআন নিষিদ্ধ করা, ধর্মান্তরিত করা, নারীদের ধর্ষণ, বন্দি শিবিরে আটকে রেখে নির্যাতন করা ইত্যাদি কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে চীন সরকার প্রতিনিয়ত সংখ্যালঘুদের মানবাধিকার লঙ্ঘন করে যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের দৃষ্টি থেকে পুরো বিষয়টি গোপন রাখতে চেষ্টা চালাচ্ছে চীন সরকার।’

বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, উইঘুর মুসলমানদের উপর নিপীড়নের বিরুদ্ধে সুশীল সমাজ, বুদ্ধিজীবীদের কথা বলতে হবে। জাতিসংঘের মানবাধিকার কমিশনের বৈঠক ডেকে উইঘুর মুসলিমদের উপর নির্যাতন বন্ধ ও অধিকার প্রতিষ্ঠায় বিশ্বব্যাপি চাপ তৈরি করতে হবে চীন সরকারের উপর। যেন চীন সরকার মুসলিমদের নাগরিক অধিকারের প্রতি সম্মান জানাতে বাধ্য হয়।

বিবৃতিতে শান্তি ও সৌম্যের পৃথিবী গড়তে প্রতিটি দেশের প্রতিটি নাগরিককে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com