১লা ডিসেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ১৬ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ৬ই জমাদিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

ক্বলবের অসুখ সারাতে বুযুর্গানে কেরামের সংস্পর্শে থাকতে হবে : আল্লামা মাসঊদ

ঢাকার ইসলাহী ইজতেমায় সকলকে উপস্থিত থাকার আহ্বান আল্লামা মাসঊদের

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : রাজধানীর খিলগাঁও চৌধুরিপাড়ায় জামিআ ইকরা বাংলাদেশ প্রাঙ্গণে আগামী ১৯, ২০ বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামা কর্তৃক আয়োজিত দুই দিনব্যাপী ইসলাহী ইজতেমায় সকলকে উপস্থিত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন সংগঠনটির চেয়ারম্যান, শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম, ফিদায়ে মিল্লাত সাইয়্যিদ আসআদ মাদানী (রহ.) এর খলীফা, শাইখুল ইসলাম আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ।

তিনি বলেন, আমাদের শরীরে অসুখ হলে আমরা ডাক্তারের শরণাপন্ন হই। আমাদের ক্বলবেরও অসুখ হয়, ক্বলবের অসুখ থেকে মুক্তি পেতে চাইলে আল্লাহওয়ালাদের সংস্পর্শে থেকে ইসলাহে নাফসের অনুশীলন করতে হয়। সে লক্ষ্যে আগামী শনিবার বাদ আসর থেকে নিয়ে রবিবার বাদ ইশা পর্যন্ত জামিআ ইকরা বাংলাদেশ প্রাঙ্গণে ইসলাহী ইজতেমার আয়োজন করা হয়েছে। আপনারা সকলেই এই ইজতেমায় শরীক থাকবেন।

শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) ইকরা ঝিল মসজিদ কমপ্লেক্সে জুমার বয়ানে আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ এসব কথা বলেন।

শরীরের মধ্যে ক্বলবের অবস্থান রাজার ন্যায় উল্লেখ করে শাইখুল ইসলাম বলেন, ক্বলবকে আল্লাহ তাআলা শরীরের রাজা বানিয়েছেন। ক্বলবের মধ্যে আল্লাহর মুহাব্বাত পয়দা হলে, চেতনা পয়দা হলে অন্যান্য অঙ্গগুলোও তার অনুসারে চলে। ক্বলব হলো রাজার মতো আর মস্তিষ্ক হল উজিরের মতন। ক্বলব তার চেতনাকে মস্তিষ্কে পাচার করে। পরে মস্তিষ্ক সে অনুসারে অন্যান্য অঙ্গগুলোকে পরিচালিত করে।

ক্বলবের ইসলাহ হলে সারা শরীরের ইসলাহ হয়ে যায় মন্তব্য করে এই আধ্যাত্মিক রাহবার বলেন, ক্বলবের ইসলাহ (সংশোধন) হলে সমস্ত অঙ্গপতঙ্গেরই ইসলাহ হয়ে যায়। একটা মানুষ সংশোধিত হলে তার পরিবারও সংশোধিত হয়ে যায়। তার সমাজ সংশোধিত হয়ে যায়। এভাবে সমাজে ভালো কাজের একটা পরিবেশ সৃষ্টি হয়।

ক্বলবের ইসলাহের প্রতি মানুষকে আহ্বান জানাতে গিয়ে আল্লামা মাসঊদ বলেন, আমরা শরীরে অসুখের জন্য ডাক্তারের কাছে দ্বারস্থ হই। কিন্তু ক্বলবের অসুখকে ভালো করার চিন্তা আমাদের মাঝে নেই। এই চিন্তা না থাকার কারণেই আজ সমাজ নষ্ট হয়ে গেছে।

তিনি বলেন, ক্বলবকে ঠিক করার জন্যই আল্লাহ তাআলা যুগে যুগে আম্বিয়ায়ে কেরামকে পাঠিয়েছেন। নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সংস্পর্শে থেকে সাহাবায়ে কেরাম নিজেদের আত্মশুদ্ধি করেছেন। ক্বলবকে কীভাবে ঠিক করা যায় পূর্ববর্তী বুযুর্গানে কেরাম সেই মেহনত করে গেছেন। সেই লক্ষ্যে আমরাও ইসালাহী ইজতেমার আয়োজন করে থাকি। আমাদের ইসলাহী ইজতেমা হবে হাজীপাড়া ঝিল মসজিদ কমপ্লেক্সে। দেশের বড় বড় বুযুর্গানে কেরাম এই ইজতেমায় উপস্থিত থাকবেন। ক্বলবকে কীভাবে ঠিক করা যায় সে ব্যাপারে নসীহত পেশ করবেন। আমরা সবাই উক্ত ইসলাহী ইজতেমায় শরীক হয়ে আত্মার সংশোধন করবো।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com