৮ই অক্টোবর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ , ২৩শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ , ১১ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪৪ হিজরি

পৃথিবীর কোনো ভাষাই নবীজী সা. এর সৌন্দর্যের বর্ণনা দিতে পারবে না : আল্লামা মাসঊদ

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তুলনারহিত সৌন্দর্যের অধিকারী ছিলেন বলে জানিয়েছেন শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম, শাইখুল ইসলাম আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ। তিনি বলেন, পৃথিবীর কোনো ভাষাই নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সৌন্দর্যের বর্ণনা তুলে ধরতে পারবে না।

শুক্রবার (১৬ সেপ্টেম্বর) ইকরা ঝিল মসজিদ কমপ্লেক্সে জুমার বয়ানে তিনি এ কথা বলেন।

উম্মতের উপর নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কিছু হক রয়েছে জানিয়ে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের উপর নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের কিছু হক ও অধিকার রয়েছে। এর মাঝে একটি হক হলো, নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামকে মনে-প্রাণে ভালোবাসা। পৃথিবীর সবকিছুর চেয়ে; এমনকি মা-বাবার চেয়েও নবীজীকে বেশি ভালোবাসা। তাহলেই আমরা পরিপূর্ণ মুমিন হতে পারবো।

খলীফায়ে ফিদায়ে মিল্লাত আল্লামা মাসঊদ বলেন, নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের উপর আমাদেরও একটি আবদার আছে। কেয়ামত দিবসের ভয়াবহ অবস্থায় সবাই যখন হা-হুতাশ করে সুপারিশের জন্য এখানে সেখানে দৌড়াবে, সকল নবীগণ যখন সুপারিশ করতে নাকচ করে দিবেন, সেদিনের সেই অবর্ণনীয় ভয়াবহতা থেকে তিনি আমাদেরকে উদ্ধার করবেন, আমাদেরকে তাঁর সুপারিশ–শাফাআতের অন্তর্ভুক্ত করে নেবেন।

একজন মানুষ যেসব কারণে অপরকে ভালোবাসে, এর প্রতিটি কারণ নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের মাঝে বিদ্যমান ছিলো উল্লেখ করে আল্লামা মাসঊদ বলেন, নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের মাঝে ভালোবাসার প্রতিটি গুণ পরিপূর্ণরূপে ছিলো। সৌন্দর্য, গুণাবলী, আত্মীয়তার সম্পর্ক ও ইহসান—এই চারটি জিনিসের সমন্বয় ঘটেছিলো নবীজীর মাঝে। তাই নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম হলেন ভালোবাসা প্রাপ্তির সবচেয়ে যোগ্য ব্যাক্তি।

নবীজীর সৌন্দর্যের কথা বর্ণনা করতে গিয়ে শোলাকিয়া ঈদগাহের গ্র্যান্ড ইমাম বলেন, নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ছিলেন পৃথিবীর সবচেয়ে সুন্দর ব্যক্তি। তাঁর সৌন্দর্যে কোনো খুঁত ছিলো না। আল্লাহ তাআলা নবীজীর মতো কাউকে বানাননি, বানাবেনও না। আল্লাহ তাআলা দুনিয়াতে নবীজীর সব সৌন্দর্য প্রকাশ করেননি, ৭০ হাজার পর্দা দিয়ে তাঁর সৌন্দর্য আবৃত করে রেখেছিলেন।

আরও পড়ুনঃ আল্লাহর পরে শ্রেষ্ঠ যিনি: এ এক আশ্চর্য অসীম পাঠ-মুগ্ধতা আমার

পৃথিবীর কোনো ভাষাই নবীজীর সৌন্দর্য বর্ণনা করতে সক্ষম নয় জানিয়ে তিনি বলেন, সাহাবায়ে কেরাম হাদীস শরীফে নবীজী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের যে বর্ণনা দিয়েছেন সেটা কেবল তাদের অনুভূতি ছিলো মাত্র। প্রকৃতভাবে পৃথিবীর কোনো ভাষাই নবীজী সৌন্দর্যের বর্ণনা দিতে পারবে না।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২২ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com