২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৬ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

যুক্তরাজ্যে ভিজিট মাই মস্ক উদযাপন

যুক্তরাজ্যে ভিজিট মাই মস্ক উদযাপন

যুক্তরাজ্যে মসজিদ ঘুরে দেখলেন অমুসলিমরা

পাথেয় টোয়েন্টিফোর ডটকম : যুক্তরাজ্যে ভিজিট মাই মস্ক উদযাপন হয়েছে। দারুণ আনন্দঘন মুহূর্তে যুক্তরাজ্যের মসজিদগুলোতে ভিড় জমায় অন্যান্য ধর্মাবলম্বী মানুষেরা। মুসলমান কীভাবে সালাত আদায় করেন। রুকু, সেজদা করেন। আবার পবিত্রতার জন্য কীভাবে অজু করেন। মসজিদে আর কী কী ব্যবস্থা রয়েছে। আত্মিকভাবে সাধক হয়ে ওঠার জন্য যা যা রয়েছে সবই ঘরে দেখেন স্থানীয়রা। এ সময় মসজিদগুলোতে অন্যরকম এক আবহ ছড়িয়ে পড়ে। এটি যুক্তরাজ্যে পঞ্চমবারের মতো পালিত হলো। ‘ভিজিট মাই মস্ক’ কর্মসূচি নিয়ে যুক্তরাজ্যবাসীর কৌতূহলের শেষ নেই।

দেখতে আসা সাধারণ দর্শনার্থীদের নান প্রশ্নের উত্তর দেওয়ারও ব্যবস্থা থাকে। ইমাম, মু্আজ্জিন ও অন্যান্য দায়িত্বশীলগণ এসব প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।

রোববার যুক্তরাজ্যের আড়াইশ মসজিদ নন-মুসলিম নারী পুরুষ ও শিশু কিশোরদের পদচারণায় মুখরিত হয়ে ওঠে। বিপুল সংখ্যক নন-মুসলিমের অংশগ্রহণে পালিত হয় ‘ভিজিট মাই মস্ক’ কর্মসূচি।

বিশেষ করে ইউরোপের অন্যতম বৃহত্তর ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ইস্ট লন্ডন মসজিদে ছিলো নন মুসলিমদের উপচেপড়া ভিড়।

সারাদিনই দলেদলে আসতে থাকেন খৃস্টান, ইহুদীসহ বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী মানুষ। তাঁরা মসজিদটি ঘুরে দেখেন। মসজিদ যে উপসনার স্থান, এখানে গোপনীয় কোনো কর্মকাণ্ড পরিচালিত হয় না, এ ধরণেরই একটি স্বচ্ছ ধারণা নিয়ে ফিরে যান তারা।

অন্যান্য মসজিদের মতো ইস্ট লন্ডন মসজিদ সকাল ১১টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত উন্মুক্ত ছিলো। এলএমসির গ্রাউন্ড ফ্লোরে দুপুর ১টার দিকে অনুষ্ঠিত হয় মিডিয়া লঞ্চিং। মসজিদের পরিচালক দেলওয়ার খানের পরিচালনায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন বেথনাল গ্রীন ও বো আসনের এমপি রুশনারা আলী, টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিলের নির্বাহী মেয়র জন বিগস, লিবারেল ডেমোক্রেট দলের লন্ডন মেয়র প্রার্থী সিভন বিনিটা, জেরুসালেম থেকে আগত বিশিষ্ট পাদ্রী বেন আব্রাহামসন ও রেবেকা আব্রাহামসন।

ইস্ট লন্ডন মসজিদের ইমাম শায়খ মোহাম্মদ মাহমুদের কুরআন তেলাওয়াতের মধ্য দিয়ে শুরু হওয়া অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মসজিদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হাবিবুর রহমান। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন মসজিদের সেক্রেটারি আইয়ূব খান, ইমাম ও খতীব শায়খ আব্দুল কাইয়ূম এবং মুসলিম কাউন্সিল অব বৃটেনের সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল মাসুদ আহমদ।

রুশনারা আলী এমপি পাঁচ বছর ধরে ভিজিট মাই মস্ক কর্মসূচি আয়োজনের জন্য মুসলিম কাউন্সিল অব বৃটেনকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এই কর্মসূচির মাধ্যমে যুক্তরাজ্যসহ গোটা বিশ্ব দেখতে পারবে যে ইসলাম সবসময়ই শান্তি ও ঐক্যের ধর্ম। কিছু মানুষ আমাদের মধ্যে বিভক্তি সৃষ্টি করতে চায়, আমাদের ধর্মকে নেতিবাচকভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করে।

সুতরাং আমরা যে যে ধর্মে বিশ্বাসী হইনা কেন আমাদের উচিত দেশব্যাপী শান্তির বাণী ছড়িয়ে দেয়া। এটা ধর্মে বিশ্বাসী অবিশ্বাসী সকলেরই দায়িত্ব। ইসলাম সম্পর্কে মিডিয়ার নেতিবাচক প্রচারণা বন্ধে সারাদেশে মসজিদ ও ইসলামি কমিউনিটির কার্যক্রম ব্যাপকভাবে তুলে ধরা দরকার বলে মত দেন তিনি।

মেয়র জন বিগস বলেন, টাওয়ার হ্যামলেটসে অধিকসংখ্যক মুসলিমের বসবাস। কাউন্সিল কেবিনেটেও অধিকসংখ্যক মুসলিম কাউন্সিলর নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন। তিনি সকলকে সঙ্গে নিয়েই কাউন্সিলের বাসিন্দাদের জন্য কাজ করছেন। টাওয়ার হ্যামলেটসের বহুধর্মের মানুষের মধ্যে শান্তি রক্ষায় মেয়র হিসবে তিনি সবসময় সচেষ্ট আছেন।

বিশেষ করে মুসলমান নারী-পুরুষের ধর্মীয় অধিকার রক্ষায় তিনি সচেষ্ট।

ভিজিট মাই মস্ক কর্মসূচি উপলক্ষে এলএমসির নিচতলায় মসজিদ ইসলাম ও মুসলমানদের ইতিহাস-ঐতিহ্য নিয়ে একটি প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়। প্রদর্শনী হল থেকে ২০ মিনিট পর পর একজন সুদক্ষ গাইডের তদারকিতে একটি করে গ্রুপ মসজিদের ভেতরে মেইন হলে নিয়ে যাওয়া হয়। ভেতরে নিয়ে গিয়ে মুল মসজিদ, ভিজিটিং সেন্টার ও অজুখানা দেখানো হয়। এ এসময় নন মুসলিমদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন ইমাম ও গাইডগণ। আগতরা দেখতে পারেন মুসলমনরা কীভাবে নামাজ পড়েন, নামাজের আগে কীভাবে অজু করতে হয়। এসময় ইসলাম সম্পর্কে জানতে ও বুঝতে তাদের মধ্যে বেশ আগ্রহ পরিলক্ষিত হয়।

জোহর ও আসরের নামাজের সময় মারিয়াম সেন্টারে অবস্থিত নন-মুসলিম ভিজিটিং সেন্টার খুলে দেয়া হয়। আগতরা সেখানে দাঁড়িয়ে নামাজ পড়ার দৃশ্য অবলোকন করেন। মাথায় ওড়না পরে অত্যন্ত মার্জিত পোশাকে নারীরা মসজিদ ঘুরে দেখেন।

২০১৫ সালে মুসলিম কাউন্সিল অব বৃটেন (এমসিবি) ভিজিট মাই মস্ক কর্মসূচির উদ্বোধন করে। প্রথম বছরই নন-মুসলিমদের পক্ষ থেকে ব্যাপক সাড়া পাওয়া যায়। প্রথম বছর যুক্তরাজ্যের ২০টি মসজিদ এই কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে। পরের বছর দ্বিতীয় অপেন ডে’তে অংশগ্রহণ করে ৮০টি মসজিদ।

তৃতীয়বারের কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করে দেড়-শতাধিক মসজিদ। চতুর্থ বছর অংশগ্রহণ করে প্রায় দুই শতাধিক মসজিদ। ওই বছর প্রায় ৪০ হাজার মুসলিম ও নন-মসলিম মসজিদগুলো পরিদর্শণ করেন। এবার পঞ্চম ভিজিট মাই মস্ক কর্মসূচিতে সারাদেশে আড়াইশ মসজিদ মুসলিম-ননমুসলিমদের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হয়। সারাদিন হাজার মানুষ মসজিদগুলো ঘুরে দেখেন।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com