২৭শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ , ১২ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ , ১৬ই জিলহজ, ১৪৪২ হিজরি

যে সব দুর্ঘটনায় মৃত্যুবরণকারীরা শহীদ!

পাথেয় রিপোর্ট : হযরত জাবের ইবনে আতীক রাদ্বিয়াল্লাহু আনহু বলেন, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, তোমাদের নিকট শাহাদাৎ কি? তারা বলল, আল্লাহর রাস্তায় মারা যাওয়া। তিনি বললেন, আল্লাহর রাস্তায় মারা যাওয়া ছাড়াও সাত প্রকার শাহাদাৎ রয়েছে-

১. প্লেগ বা মহামারিতে মৃত ব্যক্তি শহীদ; ২. পানিতে ডুবে মৃত ব্যক্তি শহীদ; ৩. ফুসফুসে রোগাক্রান্ত মৃত ব্যক্তি শহীদ; ৪. পেটের রোগে মৃত ব্যক্তি শহীদ; ৫. আগুনে পুড়ে মৃত ব্যক্তি শহীদ; ৬. ধ্বংস স্তুপের নিচে চাপা পড়ে মৃত ব্যক্তি শহীদ; ৭. আর যে নারী পেটে বাচ্চা নিয়ে মারা যায় সেও শহীদ। –মুসনাদে আহমদ : (২৩৮০৪), আবূ দাউদ : (৩১১১), নাসায়ী : (১৮৪৬)

২১ ফেব্রুয়ারি বুধবার পুরান ঢাকার চকবাজারে মর্মান্তিক অগ্নিদুর্ঘটনায় নিহতদের সকলকে আল্লাহ শাহাদাতের মর্যাদা দিয়ে জান্নাত নসীব করুন এবং শোক-সন্তপ্ত স্বজনদের সবরে জামিল ইখতিয়ার করার তাওফিক দান করুন। পাশাপাশি ক্ষতিগ্রস্তদের উত্তম ক্ষতিপূরণের ব্যবস্থা করে দিন। আমীন ইয়া রাব্বাল আলামীন।

এদিকে রাজধানীর চকবাজারের ক্যামিক্যাল গোডাউনগুলো নিয়ে এখনই সিদ্ধান্ত নেওয়ার সময় এসেছে দাবি করে বাংলাদেশ জমিয়তুল উলামার চেয়ারম্যান ও ঐতিহাসিক শোলাকিয়ার গ্র্যান্ড ইমাম শাইখুল হাদিস আল্লামা ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেছেন, পুরান ঢাকার চকবাজারে রাজ্জাক ভবনে লাগা আগুনে পুড়ে নিহতদের প্রতি আমরা গভীর শোক জানাই। আল্লাহ তাআলা তাদের পরকালকে সুন্দর করে দিন।

ক্ষতিগ্রস্ত ও আহতদের পাশে দাঁড়াবার আহ্বান জানিয়ে আল্লামা মাসঊদ বলেন, মর্মান্তিক এই দুর্ঘটনায় আমরা মর্মাহত। সরকারসহ সব বিত্তবানদের উচিত তাদের পাশে দাঁড়ানো। সর্বস্ব হারানো মানুষের পাশে দাঁড়ানো বড় ইবাদত।

আবাসিক এলাকায় ক্যামিক্যাল গোডাউন নিয়ে ভাবার সময় এসেছে দাবি করে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ বলেন, রাজধানীতে কোনটা আবাসিক এড়িয়া আর কোনটা ব্যসায়িক অঞ্চল তা বোঝা বড় দায়। সরকারের উচিত, অন্তত বিপজ্জনক ক্যামিক্যাল জাতীয় জিনিসের পৃথব অঞ্চল ঘোষণা করা। মানুষের জীবন সবার আগে।

পুরান ঢাকার চকবাজারে রাজ্জাক ভবনে লাগা আগুন লাগার বিষয়ে তদন্তের দাবি জানিয়ে মাওলানা মাসঊদ বলেন, বিচার বিভাগীয় তদন্তের মাধ্যমে আসল ঘটনা বের করে আনতে হবে। কী কারণে আগুন লেগেছে।

২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯ বৃহস্পতিবার দুপুরে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ফরীদ উদ্দীন মাসঊদ এসব কথা বলেন।

আল্লামা মাসঊদ বলেন, বার বার কেন পুরান ঢাকায় আগুন লাগছে, চট্টগ্রামের বস্তিতে বড় আগুন লাগার ঘটনা ঘটছে। তা খতিয়ে দেখা উচিত। আগুনের মতো ভয়াবহ এই ঘটনার নেপথ্য নায়কদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হওয়া উচিত।

শেয়ার করুন


সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত © ১৯৮৬ - ২০২১ মাসিক পাথেয় (রেজিঃ ডি.এ. ৬৭৫) | patheo24.com
Design & Developed BY ThemesBazar.Com